মিষ্টার মুন্সীগঞ্জ : মুন্সীগঞ্জের মহিউদ্দিন

কামাল আহম্মেদ: হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী, স্বাধীনতার স্থপতি, জাতির জনক বঙ্গঁবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চীফ সিকিউরিটি অফিসার ছিলেন আলহাজ্ব মোঃ মহিউদ্দিন। সাবেক সংসদ সদস্য মোঃ মহিউদ্দিন, বর্তমানে মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে দায়িত্ব পালন করছেন। বিস্তারিত… »

ঘুরে আসুন পদ্মাপাড়ের ‘বিক্রমপুর জাদুঘর’

মাহতাব হোসেন: মুখে মুখে এখনো শুনে আসছেন বিক্রমপুরের নাম কিন্তু খুঁজে পাচ্ছেন না। মানচিত্র নিয়ে বসে গেছেন- মানচিত্রে বিক্রমপুর নেই। অনেকের মুখেই শুনেছেন তিনি বিক্রমপুরে থাকেন। তাহলে কোথায় গেল বিক্রমপুর? বিস্তারিত… »

কেওয়ার বদ্ধভূমি

গোলাম আশরাফ খান উজ্জ্বল: ১৯৭১ সাল। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ। এ যুদ্ধের ঢেউ কেওয়ার গ্রামেও লেগেছিল। স্বাধীনতা যুদ্ধে অস্ত্র হাতে নিয়ে জীবন বাজী রেখেছিল এ গ্রামের গোলাম মর্তুজা চৌধুরী রাজা, বিস্তারিত… »

গজারিয়ার ইতিহাস ও ঐতিহ্য

বইমেলায় সাহাদাত পারভেজের গবেষণা গ্রন্থ
পৌরাণিক কাহিনী আর প্রাচীন সাহিত্যে মেঘনা নদী নয়, মেঘনা সাগর, প্রমত্তা ভীষণা। প্রাচীন মেঘনা তার সাগর খেতাব হারিয়ে এখন নিঃস্ব নদী। বিস্তারিত… »

আমার প্রথম ফায়ারেই ঢলে পড়ে এক রাজাকার, অতঃপর…

হরগঙ্গা কলেজের পাকি ক্যাম্প অপারেশনের গল্প শোনালেন মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ
মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল: ‘রাত দুটোর এক মিনিট আগে এক রাজাকার দুটোর ঘণ্টা বাজাতে আসে। এক বেল দেয়ামাত্রই আমি এলএমজি দিয়ে সিগন্যাল ফায়ার ওপেন করি। বিস্তারিত… »

আমার প্রথম ফায়ারেই ঢলে পড়ে এক রাজাকার, অতঃপর…

হরগঙ্গা কলেজের পাকি ক্যাম্প অপারেশনের গল্প শোনালেন মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ
মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল: ‘রাত দুটোর এক মিনিট আগে এক রাজাকার দুটোর ঘণ্টা বাজাতে আসে। এক বেল দেয়ামাত্রই আমি এলএমজি দিয়ে সিগন্যাল ফায়ার ওপেন করি। বিস্তারিত… »

হরগঙ্গা কলেজে পাক আর্মি ক্যাম্পে হামলার পরই ওরা মুন্সীগঞ্জ ছাড়ে

রতনপুরের যুদ্ধে কবরে ঢুকে ওখান থেকেই গুলি চালিয়েছি ॥ বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী আনোয়ার হোসেন
মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল: ‘ধলেশ্বরী নদীর পাড়ে মুক্তারপুরের কাছে নয়াগাঁও চিতাশালা থেকে শীতলক্ষ্যা নদীতে পাকবাহিনীর গানবোট লক্ষ্য করে মর্টার নিক্ষেপ করে সফল হামলা চালাই। বিস্তারিত… »

হরগঙ্গা কলেজে পাক আর্মি ক্যাম্পে হামলার পরই ওরা মুন্সীগঞ্জ ছাড়ে

রতনপুরের যুদ্ধে কবরে ঢুকে ওখান থেকেই গুলি চালিয়েছি ॥ বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী আনোয়ার হোসেন
মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল: ‘ধলেশ্বরী নদীর পাড়ে মুক্তারপুরের কাছে নয়াগাঁও চিতাশালা থেকে শীতলক্ষ্যা নদীতে পাকবাহিনীর গানবোট লক্ষ্য করে মর্টার নিক্ষেপ করে সফল হামলা চালাই। বিস্তারিত… »

রামেরগাঁওর যুদ্ধে প্রথম গুলি করি আমি, যুদ্ধে মরল ৪ পাকসেনা

মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বলঃ ‘এলএমজির গুলি ছুড়তেই পাকবাহিনীর চারজন মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। ওদিক থেকে বৃষ্টির মতো গুলি আসছে। কোনক্রমেই কবর থেকে মাথা তোলা যাচ্ছে না। বিস্তারিত… »