সিরাজদিখানের সাংবাদিক ও ইউপি চেয়ারম্যানদের সাথে উপজেলা চেয়ারম্যানের মতবিনিময় সভা ও ইফতার মাহফিল

নাছির উদ্দিন : সিরাজদিখান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদের আয়োজনে মতবিনিময় সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৫ টায় এই সভা সিরাজদিখান উপজেরা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। পরে দোয়া ও ইফতার মাহফিলের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে। অনুষ্ঠানে ইউপি চেয়ারম্যান, সাংবাদিক ও রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সিরাজদিখান প্রেসক্লাব সভাপতি কে.এন. ইসলাম বাবুলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোক্তার হোসেনের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাড, আবুল কাশেম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যন হেলেনা ইয়াসমিন, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক লতব্দী ইউনিয়ন চেযারম্যান এসএম সোহরাব হোসেন, উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও ইছাপুরা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন হাওলাদার, বালুচর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবু বকর সিদ্দিক, রশুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন চোকদার, কেয়াইন ইউপি চেয়ারম্যান আশরাফ আলী, মধ্যপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল করিম, সিরাজদিখান প্রেসক্লাব সাবেক সভাপতি সামসুজ্জামান পনির, সহ সভাপতি ইমতিয়াজ উদ্দিন বাবুল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুব্রত দাস রনক, উপজেলা আওয়ামীলীগ দপ্তর সম্পাদক মো. শহিদ ঢালী, উপজেলা যুবলীগ আহবায়ক মইনুল ইসলাম নাহিদ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি তাজুল ইসলাম পিন্টু, কৃষকলীগ সাধারন সম্পাদক গোলাম মোস্তফা সেন্টু, উপজেলা যুবলীগ যুগ্ন আহবায়ক জহিরুল ইসলাম লিটু, উপজেরা ছাত্রলীগ সভাপতি সৈকত মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক পারভেজ চোকদার পাপ্পু প্রমুখ।

এ সময় বক্তাদের মধ্যে অনেকে বলেন আমরা মুন্সীগঞ্জ-১ আসনের সিরাজদিখানবাসী দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত। আমরা এ আসনে কখনো শ্রীনগরের সাথে অর্ধেক ও লৌহজংয়ের সাথে অর্ধেক তাই আমাদের এই অঞ্চল থেকে স্বাধীনতার পর ৪৩ বছর ধরে কোন এমপি পাই নাই। আমরা আর অবহেলায় থাকতে চাই না। আমরা এখানে আওয়ামীলীগ সংগঠিত আমাদের মধ্যে কোন দ্বন্দ্ব নাই। তাছাড়া সাংবাদিকদের মধ্যেও ঐক্য আছে যা অন্য উপজেলায় নাই। আশা করি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যদি আমাদের উপজেলা চেয়াম্যানের হাতে নৌকা তুলেদেন নির্বাচনে জয়ী হব আমরা ইনশাআল্লাহ। তাই সাংবাদিকদের কাছে অনুরোধ আপনারা আমাদের নেতা মহিউদ্দিন আহমেদকে নিয়ে লেখেন। প্রধানমন্ত্রী তাহলে জানতে পারবে। তৃণমূল পর্যায়ের এই নেতা ৫ বার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ২ বার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন ভালো ও যোগ্য লোক না হলে এতবার তাকে দায়িত্ব দিতনা এ এলাকার জনগণ। আবার অনেকে বক্তব্যে বলেন সিরাজদিখানে ভোটার বেশি। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ সকলের নিকট দোয়া ও সহযোগিতা চান। এ সময় উপজেলা বিভিন্ন ইউপি চেয়ারম্যান, সাংাবাদিক ও রাজনৈতিক অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *