টঙ্গীবাড়ীতে গৃহবধূকে অপহরণ করে ধর্ষণ

টঙ্গীবাড়ীতে গৃহবধূকে অপহরণ করে ধর্ষণ করা হয়েছে। উপজেলার কামারখাড়া ইউনিয়নের নশংকর গ্রামের মৃত ইব্রাহীম শেখের মেয়ে তিশা (১৯)কে একই গ্রামের আওলাদ বেপারীর ছেলে তানজিম বেপারী (২৬) জোর পূর্বক অপহরণ করে ধর্ষন করে। তিশা জানান- তার মা ছামসুননাহার তার জন্মের ২ বছর পর মারা যান, মায়ের মৃত্যুর পর তিশাকে পালক হিসেবে একই গ্রামের দুলাল

শেখ নিয়ে নেন। সেখানেই তিশার ঠিকানা। দরিদ্র দুলাল শেখ বহু কষ্টে পালক কন্যাকে লালন পালন করাবস্থায় স্থানীয় বখাটে তানজিম তিশাকে রাস্তা-ঘাটে উত্ত্যাক্ত করত। তানজিমের এরুপ অপকর্মের কারনে মান-সম্মান বাচাঁতে একই ইউনিয়নের

বেশনাল গ্রামের সাজ্জাত হোসেনের সহিত তিশার বিয়ে দেয়া হয় চলতি বৈশাখেই। বিয়ের পর তানজিম তিশার শশুর বাড়ির আশ পাশে অজ্ঞতনামা যুবকদের নিয়ে মহড়া দিত।

গত ৫ই মে শনিবার রাত ৯টায় তিশা প্রকৃতির ডাকে ঘর থেকে বের হলে তানজিম তার সহযোগীদের সহায়তায় তিশাকে অপহরণ করে উপজেলার আউটশাহী ইউনিয়নের ভোরন্ডায় নিয়ে যায়। সেখানে রাত ১০ ঘটিকার সময় কৃষি জমিতে তিশাকে

ইচ্ছার বিরুদ্ধে ভয়ভীতি দেখাইয়া জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। পরে তিশাকে তার বোনের বাড়িতে ফেলে রেখে তানজিম পালিয়ে যায়।

উক্ত ঘটনায় তিশা ও তার পালিত পিতা স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন হাওলাদারকে জানালে তিনি বিচারের ভার নেন কিন্তু আজ কাল করে কোন পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। ধর্ষকের পিতা আওলাদ বেপারী প্রভাবশালী হওয়ায় তিনি ধর্ষিতার পরিবারকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণের বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা জানান শামীমা আক্তার জানান- আমার কাছে এধরনের কোন অভিযোগ নেই।

টঙ্গীবাড়ী থানা অফিসার ইনচার্জ ইয়াদৌস হাসান জানান- আমার নিকট লিখিত কোন অভিযোগ নেই অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নিব।

মুন্সিগঞ্জ নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *