সিরাজদিখানে কোরিয়ান নাগরিকসহ দুই নারীর লাশ উদ্ধার

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় পৃথক দুই স্থান থেকে মঙ্গলবার সকালে কোরিয়ান নাগরিকসহ দুই নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সকাল ৮টার দিকে উপজেলার উত্তর মধ্যপাড়া গ্রামের স্বামী জাহাঙ্গীর আলমের বসতঘর থেকে তার স্ত্রী কোরিয়ান নাগরিক কিউইউনের (৪৬) লাশ উদ্ধার করে।

এছাড়া সকাল ১০টার দিকে উপজেলার খাসকান্দি গ্রাম সংলগ্ন ধলেশ্বরী নদী থেকে নুরুন্নাহার মিমি (৩২) নামে অপর আরেক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানায়, উত্তর মধ্যপাড়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম ২০ বছর আগে কোরিয়ান নাগরিক কিউইউনকে বিয়ে করেন। দাম্পত্যজীবনে তাদের কোন সন্তান না থাকায় জাহাঙ্গীর দ্বিতীয় বিয়ে করেন। সোমবার রাতে জাহাঙ্গীর তার দ্বিতীয় স্ত্রীর সঙ্গে জেলার শ্রীনগরে ছিলেন। এতে ওই রাতে একাই ঘরে ছিলেন কোরিয়ান নাগরিক কিউইউন।

মঙ্গলবার সকালে কিউইউনকে অনেক ডাকাডাকি করার পরও কোন সাড়া পাওয়া যাচ্ছিল না। তাই বসতঘরের টিন কেটে দেখা যায় বিছানায় তার লাশ পড়ে আছে। পরে থানায় খবর দেয়া হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করে। তবে তার মৃত্যুর কারণ এখনও পর্যন্ত উদঘাটন করতে পারেনি পুলিশ।

এদিকে, উপজেলার খাসকান্দি গ্রাম সংলগ্ন ধলেশ্বরী নদীতে এক নারীর লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে। পরে লাশটি নুরুন্নাহার মিমির বলে শনাক্ত করেন তার বাবা ঢাকার মিরপুরের বাসিন্দা শামসুল করীম।

তিনি জানান, গত ৬ মে ঢাকার মুগদাপাড়া এলাকার স্বামী মঈনুল ইসলাম শাহীনের বাসা থেকে বের হয় মিমি। একই দিন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মায়ের কাছে মোবাইল ফোনে মেসেজ পাঠায় মিমি। তাতে মিমি আত্মহত্যা করতে যাচ্ছে বলে জানায়।

সিরাজদিখান থানার ওসি আবুল কালাম বলেন, কোরিয়ান নারী কিউইউন একজন দ্বৈত নাগরিক। বাংলাদেশে নিযুক্ত কোরিয়ান দূতাবাস থেকে ফোন পাওয়ার পর কিউইউনের পাসপোর্ট ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সেখানে পাঠানো হয়েছে। কোরিয়ান নাগরিকসহ দুই নারীর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ঢাকাটাইমস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *