শ্রীনগরে স্বর্ণকারের দেখিয়ে দেওয়া এসিড পান করে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে স্কুল ছাত্রী

আরিফ হোসেন: শ্রীনগরে স্বর্ণ ব্যবসায়ীর দেখিয়ে দেওয়া এসিড পান করে পঞ্চম শ্রেনীর এক স্কুল ৫ দিন ধরে ঢাকা মিডফোর্ট হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। এ ঘটনায় থানা পুলিশকে অবহিত করা হলেও তারা কোন ব্যবস্থা নেয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানাগেছে উপজেলার ভাগ্যকুল এলাকার ক্ষুদ্র মাছ ব্যবসায়ী আঃ আজিজের মেয়ে ও মান্দ্রা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেনীর ছাত্রী ইয়াসমিন আক্তার (১১) গত ৩১ শে জানুয়ারী সকালে স্কুলে যাওয়ার পথে ভাগ্যকুল বাজারের স্বর্ণের দোকানদার গোকুল বর্মনের কাছে পানি খেতে চায়। এ সময় গোকুল বর্মন দোকানের ভিতরে রাখা বোতল দেখিয়ে সেখান থেকে তাকে পানি খেতে বলে। গোকুল বর্মনের কথামত শিশুটি ওই পানি পান করার সাথে সাথে বুক জ¦লে,বুক জ¦লে বলে চিৎকার দিয়ে উঠলে আশেপাশের লোকজন এসে দেখতে পায় শিশুটি পানির বদলে এসিড পান করেছে। তাৎক্ষনিক ভাবে অসুস্থ শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকার মিডফোর্ড হাসপাতালে প্রেরন করে। বর্তমানে শিশুটি আশংঙ্কাজনক অবস্থায় মিডফোর্ট হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। এদিকে এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য উঠে পরে লেগেছে।

এ ব্যাপারে শ্রীনগর থানার ওসি (তদন্ত) ফরিদ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। বিষয়টি গত ৫ ফেব্রুয়ারী উপজেলা আইন শৃংখলা সভায় মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানার নজরে আনলে তিনি শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম আলমগীর হোসেনকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *