বাল্য বিয়ে মাদকের মত সামাজিক অপরাধ

জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা
আরিফ হোসেন: মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা বলেছেন, বাল্য বিয়ে মাদকের মত একটি সামাজিক অপরাধ।আপনি ১৪/১৫ বছরের একটি মেয়েকে বিয়ে দিয়ে ভাবছেন ঝামেলা শেষ হয়ে গেছে। না আপনি কোন ভাবেই আপনার সন্তানের উপকার করেননি। সচেতন ভাবে তার সর্বনাশ করেছেন। বাল্য বিয়ের শিকার ওই মেয়েটির স্বাস্থ্য ভেঙ্গে পরার কারনে সে নানা রকম সমস্যার সন্মুখীন হয় এবং এক সময় সমাজের বোঝা হয়ে দাঁড়ায়। তিনি আরো বলেন, আমরা এখন আর শুধু বাল্য বিয়ে বন্ধ করছিনা। এর সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা দিচ্ছি।

সোমবার দুপুরে উপজেলার ষোলঘর ইউনিয় পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলামের আয়োজনে আইন শৃংখলা এবং সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির সভায় প্রধান অতিথীর বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, ইভটিজিং প্রতিরোধে কয়েকটি স্কুলে সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। বাকী স্কুল গুলোতে সিসি ক্যামেরার ব্যবস্থা করতে পারলে ইভটিজিং কমে যাবে। এই কাজে তিনি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের এগিয়ে আসার আহবান জানান। জেলা প্রশাসক বলেন, কোচিং সেন্টারের মাধ্যমে প্রশ্ন ফাঁস হচ্ছে। তালিকা তৈরি করে কোচিং সেন্টারের উপর নজরদারী বাড়াতে হবে। নাশকতা প্রতিরোধে প্রেট্রোল পাম্পের বেচা কেনায় তিনি রেজিষ্টার লিপি বদ্ধ করার নির্দেশ দেন।

শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: জাহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে উপজেলার ষোলঘর কাজী বাড়ী মাঠে অনুষ্ঠিত সভায় আরো বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকারের উপ পরিচালক আবু সালেহ মো: মহিউদ্দিন খা, শ্রীনগর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মমীন আলী, শ্রীনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী মাকসুদা লিমা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব তোফাজ্জল হোসেন, জেলা পরিষদ সদস্য ইকবাল হোসেন মাষ্টার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম হোসেন খান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহানারা বেগম, সহকারী কমিশনার ভূমি সৈয়দ ফয়েজুল ইসলাম, শ্রীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এসএম আলমগীর হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক হারুন অর রশিদ, প্রচার সম্পাদক আবু হানিফা নোমান, শ্রীনগর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আরিফ হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান সোলায়মান খান, ফিরোজ আল মামুন, আ ঃ কাইয়ূম রতন, মোকলেছুর রহমান, আ ঃ বারেক খান বারী, বাবুল হোসেন বাবু, সেলিম তালুকদার, আইউব আলী, আজিম হোসেন খান প্রমুখ। পরে জেলা প্রশাসক সমাজ সেবা অফিসের পক্ষ থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সামগ্রী, ঔষধ ও কম্বল বিতরণ করেন।

স্বাধীন বাংলা ফুটবল টিমের সহ অধিনায়ক প্রতাপ শংকর হাজরা উপস্থিত থেকে হাজরা পরিবারের পক্ষ থেকে ষোলঘর ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণের জন্য জমি দান করেন। তাদের দানকৃত জমির উপর ইউপি কমপ্লেক্স ভবনের ভিত্তি প্রস্তুর স্থাপন করেন জেলা প্রশাসক। এর পর তিনি সদরামপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি অনুষ্ঠানে অংশ নেন। সন্ধ্যায় পুনরায় সভাস্থলে এসে তিনি প্রেরণা মুন্সীগঞ্জের পক্ষ থেকে সাইকেল ও কম্বল বিতরণ করেন। সন্ধ্যার পর পরই এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেন সংগীত শিল্পি ইমরান, পুজা,বৃষ্টি প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *