পঞ্চসারে পথ থেকে তুলে নিয়ে দ্বিতীয় শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষন

জসীম উদ্দীন দেওয়ান : এবার অস্রের মুখে পথ থেকে তুলে নিয়ে দ্বিতীয় শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষন করলেন এক অজ্ঞাত যুবক। ভোরে আরবি পড়তে বের হলে ছুরি ঠেকিয়ে আট বছরের ঐ মেয়েটিকে ওঠিয়ে নিয়ে একটি পুরাতন দালানের দ্বিতীয় তলায় নিয়ে নির্যাতন করা হয় মেয়েটিকে। তবে মেয়েটি সেই যুবকের নাম না জানলেও তাকে দেখে চিনতে পারবে বলে জানান। হাসপাতালের চিকিৎসক জানিয়েছেন প্রাথমিকভাবে মেয়েটিকে ধর্ষনের আলামত পাওয়া গেছেে। এই ঘটনায় মেয়েটির বাবা বাদি হয়ে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মেয়েটির মা নাছিমা বেগম পঞ্চসার ইউনিয়ের দয়াল বাজার এলাকায় একটি তাঁত কারখানায় কাজ করেন। মঙ্গলবার রাতে নাইট ডিউটি থাকায় মেয়েটিকে নিয়ে আসে কারখানায়। আর সেখান থেকে পায়ে হেঁটে দশ মিনিটের পথ দুরে থাকা মহিলা হুজুরের বাড়িতে আরবি পড়াতে পাঠানো হয় বুধবার ভোর ছয়টায় দিকে। আর নিরব পথে মেয়েটিকে একা পেয়ে ছুরি ঠেকিয়ে ওঠে নিয়ে যায় পথে উৎপেতে থাকা এক যুবক। পাশের একটি দালানের দ্বিতীয় তলায় নিয়ে মেয়েটিকে ভয় দেখিয়ে পার্শ্ববিক নির্যাতন চালায় বলে জানান মেয়েটি।

বুধবার দুপুরে শারীরিক অসুস্থ্যতা নিয়ে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের ফিমেল সার্জারি ওয়ার্ডের ভর্তি হয়েছেন মেয়েটি। তবে নানা ধরনের পরীক্ষা নিরিক্ষার প্রতিবেদন হাতে রা পেলেও প্রাথমিকভাবে মেয়েটিকে ধর্ষনের আলামত পাওয়া গেছে বলে জানান, কর্তব্যরত চিকিৎসক।

এই ঘটনায় মেয়েটির বাবা বাদি হয়ে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন বলে জানালেন অপারেশন কর্মকর্তা।

ধর্ষককে খূঁজে বের করে আইনের আওতায় এনে দ্রুত বিচারের দাবি জানান মেয়েটির বাবা আবুল কালাম।