শ্রীনগরে শ্রমিক কেনা বেচার হাট

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার চকবাজার মোড়টিকে সকাল বেলা দেখলে মনে হবে কোন হাট বসেছে। চলতি বোর মৌসুম চারিদিকে ধানের জমি পরিষ্কার, ধানের চারা রোপণ, জমিতে সার প্রয়োগসহ আবাদি জমিতে বিভিন্ন ধরনের কাজ হয়ে থাকে। চাহিদা বেড়েছে শ্রমিকের। অনাহারি আর দুস্থ মানুুষের লাইন ধরে দাঁড়িয়ে আছে। আবার কেউ বসে আছে। কখন কে ডাক দেয়।

উত্তর বঙ্গসহ দেশর বিভিন্ন স্থান থেকে অভাবী মানুষ দলে দলে শ্রীনগর চকবাজার আসছেন কামলা (জন) বিক্রি হওয়ার জন্য। তারা প্রতিদিন বিক্রি হচ্ছে কেউ দিন, সপ্তাহ কিংবা মাস চুক্তিতে। প্রতিদিন সূর্য ওঠার আগ থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত চলে মানুষ বিক্রির এ হাট। মানুষ বিক্রির এ হাটে অভাবী মানুষের শ্রম বিক্রী নিয়ে চলে দর কষাকষি। এক পর্যায়ে চূরান্ত দরে বিক্রি হয় এ সব মানুষ। ক্ষেতে কাজ করার প্রতিটি প্রয়োজনীয় জিনিস থাকে তাদের সাথে।

সরেজমিনে চকবাজরে বসা জন কেনা বেচার হাটে গিয়ে জানা-যায়, এ হাটে প্রতিদিন প্রায় ৩/৪ শত শ্রমিক কেনা বেচা হয়ে থাকে। জন কেনা বেচার এ হাটে সুঠাম দেহের, কম বয়স্ক জোয়ান কামলার (শ্রমিক) দাম বেশি। বর্তমানে এসব হাটে কামলার (শ্রমিক) ধরন অনুযায়ী ৩শ থেকে ৪শ টাকা মজুরিতে প্রতিদিন বিক্রি হচ্ছে। উত্তরবঙ্গ ময়মনসিংহ মোহনগঞ্জের কচিগাঁও গ্রামের শফিকুল (৫১), জমালপুর বক্সগঞ্জ জাকির পাড়ার সামিউল (৩৫), কুরিগ্রাম চিলমারী বেলেরভিটার ওয়াহেদ আলী (৫০), দিনাজপুর কোতোয়ালি মনিপুর টিটি হাঁড়ির খাদেমুল (২৭), নেত্রকোনা কোনাঝুরি হারাড়কান্দ্রির কাইয়ুম (৫০), কিশোরগঞ্জ কোতোয়ালির বনগ্রামের সলিমুদ্দিন (৭০), সিলেট সুনামগঞ্জ মানিক কান্দার রাজীব (১৭), ভোলা মহিষ খালীর লালমোহনের রিপন শেখ (২৮), ফরিদপুর শিবচরের সোহেল ঢালী (৩২), এদের সাথে কথা বলে জানা-যায়, প্রতিদিন তারা নিজেকে বিক্রি করতে পারে না।

সেদিন তারা স্থানীয় মসজিদ, মাদ্রাসা, কিংবা স্কুল কলেজের সামনের বারান্দায় খেয়ে না খেয়ে রাত কাটান। বিক্রি হওয়ার আসায় আবার তারা সকালে ছুটে আসে হাটে। অনেকে কামলা (শ্রমিক)কে মানুষ বলে মনে করেন না। তাদের সাথে করেন নানা দূর্ব্যবহার। শত দূর্ব্যবহার সহ্য করেও তারা অন্যের জমিতে শ্রম বিক্রি করে থাকে। মানুষ বেচাকেনার এ হাট উপজেলার বিভিন্ন গ্রামগুলোতে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেছে।

ডেসটিনি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *