বীমা কোম্পানির এজেন্টকে আটকে রেখে টাকা ছিনতাই ও মুক্তিপণ দাবী

টঙ্গীবাড়ীতে বীমা কোম্পানির এজেন্টকে আটকে রেখে টাকা ছিনতাই ও মুক্তিপণ দাবী। টঙ্গীবাড়ীতে ডেল্টা লাইফ ইন্সিওরেন্স কোম্পানির এজেন্টকে বীমা করার কথা বলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে ১০ ঘন্টা আটকে রেখে মারধর করে তার কাছে থাকা ৩৯হাজার টাকা ও তার ২টি মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে ২টি বিকাশ নাম্বার হতে জোড় করে পিন নাম্বার আদায় করে ২৬ হাজার ৬ শত টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় গুরুতর আহত মামুন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। এলাকাবাসী রবিবার সকাল ১১টার দিকে প্রতারক চক্রের প্রধান যুবরাজ আহমেদ রিয়াদকে (৩০) গণ ধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপাদ্দ করেছে।

জানা গেছে, লৌহজং উপজেলার কলমা গ্রামের কামাল হোসেন খান কালুর ছেলে প্রতারক রিয়াদ দির্ঘদিন যাবৎ উপজেলার বাড়ইপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের বাড়িতে ভাড়া থেকে বিভিন্ন অপকর্ম করে আসছিল।

শুক্রবার দুপর ১টার দিকে উপজেলার ফজুশা গ্রামের হাজি মাওলানা মোসলে উদ্দিন দেওয়ান এর ছেলে ডেল্টা লাইফ ইন্সিওরেন্স কোম্পানির এজেন্ট মামুনকে বীমা করা কথা বলে মোবাইল ফোনে তার ভারাটিয়া বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। পরে ১ ঘন্টা বিমা সম্পর্কে কথা বলার পর মামুন চলে আসতে চাইলে প্রতারক রিয়াদ তার হাতের কাছে থাকা গামছা দিয়ে মামুনের মুখ চেপে ধরে তাকে অজ্ঞান করে ফেলে। পরে মামুন যখন জ্ঞান ফিরে পায় রিয়াদ ও তার ২ নারী সহযোগী মামুনকে অমানবিক নির্যাতন চালিয়ে তার কাছে থাকা ৩৯হাজার টাকা তার মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে তার বিকাশ একাউন্ট নাম্বার হতে জোড় করে পিন নাম্বার নিয়ে ২৬ হাজার ৬ শত টাকা নিয়ে যায় ।

পরে ঘটনার দিন রাত ১০দিকে মামুনের নিজস্ব ফ্রিজের দোকান থেকে ফ্রিজ এনে দেওয়ার শর্তে এবং তার টাকা ছিনতাই এবং তাকে মাইরধরের বিষয়টি কাউকে জনাবেনা বলে কোরয়ান শরীফে হাত রেখে শপত করলে প্রতারক চক্র তাকে ছেড়ে দেয় ।

পরে মামুন ঘটনাটি মামুনের বড় ভাই আফজাল হোসেনকে জানালে আফজাল রবিবার সকালে এলাকার লোকজন নিয়ে রিয়াদকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপাদ্দ করে। এ ব্যাপারে মামুন জানান, রিয়াদ বিমা করার কথা বলে তাকে ডেকে নিয়ে তার মুখে গামছা পেচিয়ে তাকে অজ্ঞান করে হাত পা বেধে ফেলে রাখে।

পরে তার জ্ঞান ফিরলে সে তার কাছে জমি কিনার কথা বলে ৪ লক্ষ টাকা দাবী করে । মামুন টাকা দিতে অস্বীকার করলে তাকে পিটিয়ে তার সাথে থাকা ৩৯ হাজার টাকা এবং ২টি মোবাইলের বিকাশ নাম্বার হতে ২৬ হাজার ৬শত টাকা নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে টঙ্গীবাড়ী থানা ওসি ইয়ারদৌস হাসান জানান, এলাকাবাসী একজনকে আটক করে গুরুতর আহত অবস্থায় পুলিশে সোপাদ্দ করলে তাকে মুন্সীগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ব্যাপারে এখনো কোন মামলা হয়নি।

ক্রাইম ভিশন