পদ্মায় ইলিশ ধরার দায়ে ৫০ জেলের কারাদণ্ড

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ ধরার দায়ে পদ্মা নদীর মুন্সীগঞ্জের লৌহজং অংশে অভিযান চালিয়ে ৫০ জেলেকে আটক করা হয়েছে। পরে তাদের প্রত্যেককে সাতদিন করে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এসময় তাদের কাছ থেকে ৪৫০ কেজি (১১.২৫ মণ) মা ইলিশ এবং ২ লাখ মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়েছে।

রোববার (১৫ অক্টোবর) রাত ১০টা থেকে সোমবার (১৬ অক্টোবর) সকাল ৮টা পর্যন্ত চলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান।

লৌহজং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মনির হোসেনসহ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা কামরুল হাসান, সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা ইদ্রিস তালুকদার, সম্প্রসারণ কর্মকর্তা রাসেল মোল্লা, মৎস্য অফিসের অফিস সহকারী সেলিম ইসলামসহ কোস্টগার্ড, নৌ-পুলিশের কর্মকর্তা ও সদস্যরা।

সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা কামরুল হাসান বাংলানিউজকে জানান, পদ্ম নদীতে ১০ ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে ৪৫০ কেজি (১১.২৫ মণ) মা ইলিশ এবং ২ লাখ মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া ৫০ জেলেকে সাতদিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

অভিযান শেষে জব্দকরা জাল পদ্মা নদীর পাড়ে পুড়িয়ে বিনিষ্ট করা হয়েছে এবং মা ইলিশগুলো বিভিন্ন এতিমখানায় বিতরণ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

১ থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশের ভরা প্রজনন মৌসুম। এ ২২ দিন নদীতে ইলিশসহ সব প্রজাতির মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এ সময় মাছ শিকার, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাতকরণ ও বিক্রি নিষিদ্ধ। আর আইন আমান্য করলে জেল অথবা জরিমানা, এমনকি উভয় দণ্ডের বিধান রয়েছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর