গ্রাহকদের সই জালিয়াতি করে আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ

ইসলামী ব্যাংকের এক মাঠ কর্মী
জসীম উদ্দীন দেওয়ান : ইসলামী ব্যাংক মুন্সীগঞ্জ শাখার এক মাঠ কর্মীর বিরুদ্ধে জালিয়াতির মাধ্যমে আড়াই কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে মামলা করেছেন ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। ১২০ জন গ্রাহকের নামে চার বছরে এই আড়াই কোটি টাকা ঋন তহবিল থেকে ওঠিয়ে নেন মাঠ কর্মী শহিদুল ইসলাম টিটু। ব্যাংকের টাকা পরিশোধ করার চাপ থেকে রক্ষা পেতে মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবে বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তোভোগিরা। ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড মুন্সীগঞ্জ শাখায় ২০০২ সাল থেকে অস্থায়ীভাবে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী বিনিয়োগ সুপার ভাইজার হিসেবে যোগদান করার পর ২০১২ সালে স্থায়ী নিয়োগ পান মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মহাকালি ইউনিয়নের শহিদুল ইসলাম টিটু।

প্রতারক শহিদুল ইসলাম টিটু

এর পর থেকে এলাকার সরল সোজা মানুষদের সরলতার সুযোগ নিয়ে, তাদের থেকে সাক্ষর গ্রহণ করে ব্যংক থেকে ওঠিয়ে নেন কোটি কোটি টাকা। মহাকালি ইউনিয়নের বাসিন্দা নাজিম উদ্দীন মাদবর জানান, তার স্ত্রী রানী বেগমের নামে চার বছর আগে ৫০ হাজার, তাঁর নিজের ব্যবসা প্রতিণ্ঠান ফয়সাল এন্টার প্রাইজের নামে এক লাখ এবং তাঁর ভাই আওলাদ হোসেেনের নামে তিন বছর আগে এক লাখ টাকা ঋন নিলেও বহু বছর আগে সেগুলো পরিশোধ করা হয়। কিন্তু গত মাসে ব্যাংক থেকে ফোন করে প্রতিজনের কাছ থেকে পৌনে চার লাখ টাকা দাবি করলে তারা হতাশ হয়ে পরেন। এমন ঘটনা ঐ অঞ্চলের প্রায় ১২০ জন কৃষক ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের বেলাতে। টাকা পরিশোধ না করলে ব্যাংক থেকে তাদের মামলার হুমকি দেন বলে সাংবাদিক সম্মেলনে এসে জানান, ঐসকল ভোক্তভোগিরা।

দীর্ঘ এই সময় ধরে, শতাধিক গ্রাহকের নামে এতো বড় অনিয়ম চলাটা ব্যবস্থাপকের চোখে না পরলেও গেলো মাসে সবটা ধরে পরে বলে জানিয়ে, গ্রাহক ও ব্যাংকের স্বার্থে সদর থানায় ১৪ সেপ্টেম্বর একটি মামলা করলেও যেটি চলে যান দুদুকে বলে জানান, ইসলামী ব্যাংক লিঃ মুন্সীগঞ্জ শাখার ব্যবস্থাপক মুহাম্মদ সোলায়সান।

এদিকে এই মাঠ কর্মী টিটু গেল ইউনিয়ন নির্বাচনে মহাকালি ইউনিয়ন ২নং ওয়ার্ড থেকে নির্বাচনে জয়ী হয়ে মেম্বার হওয়ায় বর্তমানে তিনি প্যানেল চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বে রয়েছেন বলে জানান এলাকাবাসী। তবে টাকা জালিয়াতির কারণে টিটুকে বহিস্কার করা হয় বলেও জানিয়েছেন ব্যাংকের ব্যবস্থাপক। মামলার পর টিটু এখন পলাতক রয়েছেন বলেও জানান তিনি।

One Response

Write a Comment»
  1. amar name 150000(der lakh)Taka uthaiche..