মেয়েকে নিজের কাছে রাখতে মামলা

স্বামী সনেটের কাছ থেকে আলাদা হয়েছেন অনেক দিন হলো। তিন বছর আগে হয়েছে আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ। মেয়ে সায়রাকে নিয়েই দিন কাটছিল আজমেরী হক বাঁধনের। এবার সেই মেয়েই হাতছাড়া হয়ে যেতে বসেছে এই মডেল-অভিনেত্রীর। পাঁচ বছর ৯ মাস বয়সী মেয়েকে নিজের কাছে রাখতে আদালতে মামলা করেছেন বাঁধন। বলেন, ‘গত মাসে একপ্রকার জোর করেই মেয়েকে কানাডায় নিয়ে যেতে চায় সনেট। ওখানেই সায়রাকে রেখে দিতে চায় ওরা। মা হিসেবে আমার অধিকার ফিরে পেতেই ৩ আগস্ট মামলা করেছি। ’

কথা বললেন বিচ্ছেদ প্রসঙ্গেও, ‘অনেকেই মনে করেন, আমি শিল্পপতির স্ত্রী, এ কারণেই বয়সে ২০ বছরের বড় একজনকে বিয়ে করেছি। আসল কথা হলো, সেই শিল্পপতি থাকতেন শ্বশুরবাড়িতে। অভিনয় করে টাকা উপার্জন করে সংসার চালাতাম আমিই।

২০১৪ সালে বিচ্ছেদ হওয়ার পরও ভেবেছি সব ঠিক করে ফেলব। আমি হয়তো আবার বিয়ে করতে পারব, কিন্তু সায়রার বাবা সনেটই। মেয়ের কথা ভেবেই সম্পর্ক ঠিক করে ফেলতে চেয়েছিলাম। দুই মাস আগে মালয়েশিয়া থেকে দেশে ফেরার পর শুনলাম, সনেট আবার বিয়ে করেছে। তার বর্তমান স্ত্রীই সায়রাকে কানাডায় নিয়ে যাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে। এমনকি আমাকেও ফোন করে বলেছে, আমি যেন এই সিদ্ধান্ত মেনে নিই! মায়ের চেয়ে মাসির দরদ বেশি হলে যা হয় আর কি! সায়রা এখন আমার কাছে আছে।নিজের কাছেই রাখতে চাই। ’

ক্রাইম ভিশন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *