মাজারে ঢুকে খাদেমসহ দুই নারীর গলা কেটে হত্যা

জসীম উদ্দীন দেওয়ান: মুন্সীগঞ্জ সদরে ভিটি শীল মন্দির এলাকায় বারেক নেংটার মাজারের ভিতর থেকে মহিলা খাদেম ও পীরের বোনের গলা কাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃত্যুর রহস্য উদঘাটন না হলেও জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এই হত্যাকান্ড ঘটতে পারে বলে ধারণা করছে পুলিশ। তবে ধর্ষনের পর হত্যার বিষয়টিও উড়িয়ে দিচ্ছেনা প্রশাসন। জেলা শহরের দুই কিলোমিটার দুরে ভিটি শীল মন্দির এলাকার নির্জন একটি জমিতে ১৯ বছর আগে দুচালা একটি টিনের ঘরের দুটি কক্ষের উত্তর পাশে গড়ে ওঠে বারেক নেংটার মাজার। আর দক্ষিন পাশের কক্ষে শুরু থেকে প্রতি বৃহস্পতিবার ভক্তদের নিয়ে জিকির করতেন খাদেম আমেনা বেগম। এলাকাবাসী জানান, মঙ্গলবার বিকালে বারেক পীরের বোন তাইজুন বেগম এখানে এসে থাকেন আমেনা বেগমের সাথে। বুধবার সকালে মিলে এই দুজনার গলা কাটা লাশ।

চাঁদপুর জেলার মতলব থানার বেলতলীতে শাহ সোলায়মান নেংটার অনুসারী বারেক নেংটা এবং স্থানীয় মাসুদ নেংটা। বারেক নেংটা মারা যাবার পর স্ব প্রনোদিত হয়ে নিজের জমিতে ঘর উঠিয়ে মাজার ঘর উঠান মাসুদ নেংটা। সেই থেকে মাসুদ নেংটার ছেলে আরিফের সাথে একটি বিরোধ ঘটে বলেও জানিয়েছেন তাইজুনের বড় ছেলে কফিলউদ্দীন। পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম বলেন, মৃত্যর রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

এই ঘটনায় তাইজুনের ছেলে কফিল উদ্দীন বাদি হয়ে সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। তবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মাসুদ নেংটাসহ কয়েকজনকে আটক করা হয় বলেও জানান ওসি। ময়না তদন্তের পর মৃতদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।