ফতুল্লায় গার্মেন্টস কর্মকর্তার মৃত্যু নিয়ে ধূম্রজাল!

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় গার্মেন্ট কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেন শুভ’র (৩০) মৃত্যুর নিয়ে ধূম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার বিকেল পর্যন্ত অব্যাহত প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে ঘটনাটি হত্যা নয়। এঘটনায় আটক নিহতের তিন বন্ধুও বলছে ইয়াবা সেবনে মাতাল হয়ে সাত তলা ভবনের ছাদ থেকে নিচে পড়ে শুভ’র মৃত্যু হয়েছে। আর নিহতের পরিবারের অভিযোগ শুভকে হত্যা করা হয়েছে।

এদিকে ময়নাতদন্ত শেষে বিকেলে ফতুল্লার মাসদাইর কবরস্থানে শুভকে দাফন করা হয়। আটক তিনজনকে কারাগারে বন্দি রাখার জন্য পুলিশ আইনের ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

নিহত সাখাওয়াত হোসেন শুভ মুন্সিগঞ্জের টঙ্গীবাড়ি থানার পলাশপুর গ্রামের শাহাদাৎ শিকদারের ছেলে। সে ফতুল্লার মাসদাইর লিচুবাগ এলাকার মাইকেলের বাড়িতে ভাড়া থাকতো এবং কাশিপুর প্লামি ফ্যাশনের মার্চেন্ডাইজার পদে চাকরি করতেন।

এব্যাপারে ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক ওসি,(তদন্ত) শাহ জালাল জানান, ঘটনার পরপরই নিহত শুভ’র তিন বন্ধু নাজমুল ইসলাম (২৮), মনা ওরফে সঞ্জয় দাস (৩১) ও জীবনকে (৩২) আটক করে পুলিশ।

এরপর মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার বিকেল পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় এবং একাধিকবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়। আটক তিনজনের দেয়া তথ্য মতে, তারা চার বন্ধু একটি বাড়ির ছাদে ইয়াবা সেবন করে। একপর্যায়ে মোবাইল টিপতে টিপে শুভ ছাদ থেকে নেমে যায়। কিছুক্ষন পর শব্দ শুনে তিন বন্ধু ছাদ থেকে নিচে তাকিয়ে দেখে শুভ সাত তলার নিচে পড়ে আছে। এরপর তারা দ্রুত ছাদ থেকে নেমে শুভকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

তিনি আরো জানান, তিন জনের দেয়া তথ্য ও ঘটনাস্থল পরিদর্শনে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা যায় শুভকে হত্যা করা হয়নি। তবে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হতে পারবো। আপাতত আটক তিনজনকে কারাগারে বন্দি রাখার জন্য পুলিশ আইনের ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।
নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, শুভ’র পরিবারের লোকজন একেক সময় একেক কথা বলছে। তারাও নিশ্চিত নয় এটি হত্যা না স্বাভাবিক মৃত্যু। তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ অভিযোগ করেনি। যদি অভিযোগ করে তাহলে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেয়ে মামলা গ্রহণ করব।

উল্লেখ্য, ফতুল্লার মাসদাইর এলাকা থেকে মঙ্গলবার রাত ৮টায় শুভ’র লাশ শহরের ৩০০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের জরুরী বিভাগে ফেলে পালিয়ে যায় দুই যুবক। নিহতের মুখমন্ডলের থুতনীর নিচে ও মাথায় জখম এবং গলায় শ্বাসরোধের চিহ্ন পেয়েছে চিকিৎসক। খবর পেয়ে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ রাত সাড়ে ১০টার দিকে শহরের ৩০০ শয্যা খানপুর হাসপাতাল থেকে শুভ’র লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

পরিবর্তন