লৌহজংয়ে সোনার দোকানে ডাকাতি

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে রবিবার রাতে বড় মোকাম বাজারের তিনটি স্বর্ণের দোকানে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা প্রায় পাঁচ লাখ টাকা, ১২ ভরি স্বর্ণ, ৮৫ ভরি রুপাসহ বেশ কয়েকটি মোবাইল ফোনসেট নিয়ে গেছে। ডাকাতের হামলায় আহত হয়েছে অন্তত সাত ব্যক্তি।

বড় মোকাম বাজারের পাহারাদার ছলিম মোল্লা ও নিত্য গোপাল জানান, রবিবার রাত দেড়টার দিকে বাজারের পাশে খাল দিয়ে ২৫-৩০ জনের ডাকাতদল সি-বোটে করে বড় মোকাম বাজারে আসে। নদীর পাড়ে টর্চলাইটের আলো ও মানুষের শব্দ শুনে এগিয়ে গেলে তাঁদের দুজনের হাত-পা বেঁধে ফেলা হয়। এ সময় ছুরি, চাপাতি ও পিস্তল উঁচিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে একটি পরিত্যক্ত ভবনের পাশে আটকে রাখে তাঁদের। পরে ডাকাতরা তালা ভেঙে একটি ভবনে ঢুকে দুটি সোনার দোকানের শাটার ভেঙে দোকানে থাকা কর্মচারীদের মারধর করে দুই লাখ ৯০ হাজার টাকা, আট ভরি স্বর্ণ ও ৬০ ভরি রুপা নিয়ে যায়।

এরপর পাশের ভবনের একটি সোনার দোকানের শাটার ভেঙে দুই লাখ টাকা, চার ভরি স্বর্ণ ও ২৫ ভরি রুপা নিয়ে যায়। এদিকে এ সময় বাজারের পাশের রাস্তা দিয়ে কয়েকজন জেলে যাচ্ছিল। এর মধ্যে এক জেলের কাছ থেকে তিন হাজার টাকা ও অন্যদের কাছ থেকে মোবাইল ফোনসেট ছিনিয়ে নেওয়া হয়। তা ছাড়া পাহারাদার ছলিম মোল্লার কাছ থেকে পাঁচ হাজার টাকাসহ মোবাইল ফোনসেট কেড়ে নেয়।

পরে ডাকাতরা চলে গেলে তাঁদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে।

কালের কন্ঠ