কাজের গতি বাড়াতে আরও ২টি হ্যামার আসছে: পদ্মা সেতু

পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ চলছেপদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজের জন্য আরও দুইটি হ্যামার আনা হচ্ছে। সেতুর কাজকে দ্রুত গতিতে এগিয়ে নিতে ১৯’শ কিলোজুল ও ৩৫’শ কিলোজুলের দুইটি হ্যামার আনা হবে। পদ্মা সেতু প্রকল্পের দায়িত্বশীল প্রকৌশলী বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

ওই প্রকৌশলী জানান, যেহেতু সেতুর কাজ কিছুটা পিছিয়ে আছে তাই পিছিয়ে পড়া কাজকে এগিয়ে নিতে হ্যামার দুইটি আনা হবে। বর্তমানে সেতুর কাজ প্রায় ৪৪ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু কাজ হওয়ার কথা ছিল অর্ধেকের বেশি। তাই হ্যামার এনে কাজের গতি বাড়ানো হবে।

তিনি আরও জানান, ১৯’শ কিলোজুলের জার্মানির হ্যামারটি আগামীকাল শুক্রবার সিঙ্গাপুর থেকে রওয়ানা হবে। জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহে এটি মাওয়ায় পৌঁছানোর কথা। ৩৫’শ কিলোজুলের হ্যামারটি আগামী নভেম্বর মাসের শেষের দিকে মাওয়ায় আসার কথা। তবে এটি তৈরির কাজ এখনও শেষ হয়নি।

এদিকে, ৩৬’শ কিলোজুল ক্ষমতা সম্পন্ন বিশ্বের সবচেয়ে বড় হ্যামারটি এখনো পুরোদমে কাজ শুরু করতে পারেনি। টেকনিক্যাল নানা সমস্যার কারণে কাজ বিলম্ব হচ্ছে। তবে শিগগিরই এ সমস্যার সমাধান হবে।

অন্যদিকে, ২৪’শ কিলোজুলের প্রথম হ্যামারটি খুব ভালোভাবেই পাইলিংয়ের কাজ করে যাচ্ছে। তবে হ্যামারগুলোর নির্দিষ্ট সময় পরপর মবিল পরিবর্তন করতে হয়। তাছাড়া অন্যান্য সংস্কারও করার দরকার পড়ে। এখন ১ম হ্যামারটি সংস্কারে রয়েছে। তাই গত কয়েকদিন পাইল ড্রাইভ কাজ বেশ একটা এগোয়নি। আগামী ২৫ তারিখের পর থেকে পাইল ড্রাইভের কাজ আবার পুরোদমে শুরু হবে।

এদিকে, সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, পদ্মা সেতুর ১৪টি পিলারের নকশা চূড়ান্ত করতে বিদেশি পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ‘কাউই’ এর তিনজন বিশেষজ্ঞ এখন মাওয়ায় অবস্থান করছেন। পদ্মা নদীর তলদেশে মাটির বৈচিত্র্যতার কারণে ১৪টি পিলারের নকশা চূড়ান্ত করা যায়নি। তিনজন বিদেশি বিশেষজ্ঞ সেতু এলাকায় অবস্থান করে বিভিন্ন খুঁটিনাটি বিষয় সম্পর্কে ধারণা নিবেন। এরপর তারা গ্রাফিক্সের মাধ্যমে নকশা চূড়ান্ত করবেন। আর নকশা চূড়ান্ত হয়ে গেলেই এই ১৪টি পিলারের পাইলিংয়ের কাজ শুরু হবে। ইতোমধ্যে ৪২টি পিলারের মধ্যে ২৮টি পিলারের পাইলিংয়ের কাজ হচ্ছে।

এদিকে, ৩৭ নাম্বার পিলারের পাইলিংয়ের কাজ শেষ করে সোমবার (১৭ জুলাই) বেস ঢালাইয়ের কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, খুব শিগগিরই এটির মূল পিলারের ঢালাই কাজ শুরু করা হবে। এরপর পর্যায়ক্রমে ৩৮ নাম্বার থেকে ৪২ নাম্বার পর্যন্ত পিলারের বেস ঢালাই করা হবে। এরপর পিলারের ওপর বসবে স্প্যান। জানা গেছে, আগামী দুই মাসের মধ্যে পাঁচটি স্প্যান বসানোর লক্ষ্য ঠিক করা হয়েছে।

বাংলা ট্রিবিউন