সভ্যতার ইতিহাস বহন করছে সুখবাসপুর দিঘি

মাহবুব আলম জয় : প্রাচীন বিক্রমপুর তথা বর্তমান মুন্সীগঞ্জ ইতিহাস সমৃদ্ধ জনপদ হিসেবে খুব খ্যাত। এই নগরীতে ঐতিহাসিক অনেক স্থান ও দর্শনীয় স্থাপনা রয়েছে। মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার রামপাল ইউনিয়নের সুখবাসপুর দিঘি বেশ পরিচিত স্থান। জনশ্রুতিতে জানা যায় রামপাল যখন পাল ও সেন রাজাদের রাজধানী ছিল তখন তারই পাশে গড়ে উঠেছিল অভিজাত এলাকা সুখবাসপুর। এলাকার মানুষের পানীয় জলের কষ্ট নিবারনের জন্য খনন করা হয় সু-বিশাল এই সুখবাসপুর দীঘি।

এই দীঘিতে প্রতি বছর শীতকালে হাজার হাজার অতিথি পাখির আগমন ঘটে। পাখীর কলকাকলীতে এলাকা মুখরিত হয়ে উঠে। এই দৃশ্য দেখার জন্য অনেক দর্শনার্থী ভীড় জমায়। তবে এক সময় যে অতিথি পাখিদের আগমন হতো তা এখন আগের তুলনায় খুব কম। স্থানীয় এক ব্যক্তি বলেন, সুখবাসপুর দিঘি দেখতে এখানে অনেক মানুষের সমাগম ঘটত। এখনো ইতিহাসের সন্ধানে এখানে অনেক পর্যটক আসেন। রামপাল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: বাচ্চু শেখ বলেন, মুন্সীগঞ্জের এই ঐতিহাসিক দিঘিটি এই জনপদের ইতিহাসে স্বাক্ষী বহন করে যাচ্ছেন।

সভ্যতার আলো