টঙ্গীবাড়ীতে ২য় শ্রেণীর ছাত্রীকে হাত-পা বেধে ধর্ষণ

টঙ্গীবাড়ী উপজেলার নশংকর গ্রামে আমবাগানে নিয়ে ২য় শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে হাত পা বেধে ধর্ষণ করে পানিতে ফেলে দিয়েছে এক লম্পট। পরে ওই ছাত্রীর চিৎকারে তার প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে সোমবার রাত ৮টার দিকে টঙ্গীবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্র হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য মুন্সীগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।

জানাগেছে, উপজেলার নশংকর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণী ওই ছাত্রী (৭) সোমবার বিকালে বাড়ির পাশের আমবাগানে খেলা করছিল। এ সময় প্রতিবেশী জুয়েল মৃধার ছেলে মাহিন (১৫) ওই স্কুল ছাত্রীকে প্রথমে গলায় চেপে ধরে তার কাছে থাকা গামাছা দিয়ে হাত পা বেধে ধর্ষণ করে পরে পাশের ডোবার পানিতে ফেলে দেয়।

এ সময় ওই স্কুল ছাত্রী চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে টঙ্গীবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্র হাসপাতালে নিয়ে আসে । টঙ্গীবাড়ী থানা এসআই শাখাওয়াত হোসেন জানান, ভিকটিম হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে ধর্ষককে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

বিক্রমপুর চিত্র