মুক্তিযোদ্ধা কলিম উল্লাহর দাফন সম্পন্ন

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা কলিম উল্লাহর দাফন সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রবার রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাকে বাউশিয়ায় তার প্রতিষ্ঠিত বৃদ্ধাশ্রম ও মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে স্ত্রীর কবরের পাশে সমাহিত করা হয়।

এর অগে সকালে কলিম উল্লাহর লাশ তার নিজ গ্রাম ষোলআনীতে আনা হলে শেষবার দেখতে শতশত মানুষ জমা হয়।

ষোলআনীতে দুইদফা জানাজার পর লাশ তার নিজের প্রতিষ্ঠিত কলিম উল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ প্রাঙ্গণে আনা হয়। সেখানে তাকে গার্ড আব অনার প্রদান করে পুলিশের সুসজ্জিত একটি দল।

তারপর তাকে উপজেলা প্রশাসন, বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক, পেশাজীবী সংগঠন ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার তারাবিহ নামাজ শেষে মুন্সীগঞ্জ কেন্দ্রীয় মসজিদে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এতে মুক্তিযোদ্ধাসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ও নানা শ্রেণি পেশার মানুষ অংশ নেন।

গত রোববার (১১ জুন) ঢাকার যাত্রাবাড়ীতে একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার সহধর্মীনি রওশন আরা মৃত্যুবরণ করেন। এরপরই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন বলে পরিবারের সদস্যরা জানান। বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকার একটি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

কলিমউল্লাহ গজারিয়ার ইমামপুর ইউনিয়নের ষোলআনী গ্রামের সন্তান। গজারিয়ায় কলিমউল্লাহ কলেজ, বহুমুখী মানব উন্নয়ন ফাউন্ডেশন ভবন, একাধিক উচ্চ বিদ্যালয়, স্কুল, মাদ্রাসা, মসজিদ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিজস্ব অর্থায়নে প্রতিষ্ঠা করেছেন।

সাবেক রাষ্ট্রপতি এইচএম এরশাদের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপদেষ্টা ছিলেন তিনি।

বিডিনিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *