শ্রীনগরে পঞ্চম শ্রেণীর স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের পর গলায় ওড়না পেচিয়ে হত্যার চেষ্টা!

আরিফ হোসেন: শ্রীনগরে পঞ্চম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে জোড় করে ধনচে ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণের পর গলায় ওড়না পেচিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে এক পাষন্ড। গোঙ্গানীর শব্দে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে ওই ছাত্রীকে গলায় ওড়না পেচানো সহ ধনচে ক্ষেত থেকে উদ্ধার করে। এসময় ধর্ষক তিন সন্তানের জনক আমির হোসেন (৩৫) পালিয়ে যায়। পরে ওই ছাত্রীকে মুমুর্ষ অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্কুল ছাত্রীটি এখন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। শুক্রবার দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলার বাঘড়া ইউনিয়নের রৌদ্রপাড়া এলাকায় এঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, ওই এলাকার বাহের আলী মদবরের ছেলে আমির হোসেন পঞ্চম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে জুস কিনে দেওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে ডেকে আনে। রাস্তার পাশের একটি দোকান থেকে জুস কিনে দেওয়ার পর আমির হোসেন ওই ছাত্রীর মুখ চেপে ধরে তাকে পার্শ্ববতী একটি ধনচে ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষন করে। ধর্ষণের পর পাষন্ড আমির হোসেন ওই ছাত্রীকে গলায় ওড়না পেচিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। এতে ওই ছাত্রীর গলার কিছু অংশ কেটে যায়। এসময় ওই ছাত্রীর গোঙ্গানীর শব্দে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে সে প্রাণে বেঁচে যায়। এব্যাপারে শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম আলমগীর হোসেন বলেন, ঘটানাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Comments are closed.