মোস্তফা ফিরোজের সম্মানে বিসিসিআইজে নৈশভোজ

রাহমান মনি: সম্প্রতি জাপান সফর করে দেশে ফিরে গেলেন বাংলা ভিশনের বার্তাপ্রধান এস কে মোস্তফা ফিরোজ। চৌধুরী ট্রেডিং কর্পোরেশনের কর্ণধার চৌধুরী শাহীনের ব্যক্তিগত আমন্ত্রণে জাপান প্রবাসীদের পুরাতন (ব্যবহৃত) গাড়ি ব্যবসার ওপর সম্যক ধারণা নিতে তিনি জাপান সফর করেন।

২০ মে ২০১৭ তিনি জাপান আসেন এবং এক সপ্তাহ সফর শেষে ২৬ মে শুক্রবার বাংলাদেশের উদ্দেশে জাপান ত্যাগ করেন। এই সময় তিনি জাপানের বিভিন্ন শহর, ব্যবহৃত গাড়ির অকশন এবং গাড়ি প্রস্তুতকারী বিভিন্ন কোম্পানির বড় বড় শোরুমগুলো পরিদর্শন করেন।

জাপান সফরের শেষ দিনে (২৫ মে) জাপানস্থ প্রবাসী বাংলাদেশি বণিক সমিতি বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি ইন জাপান (বিসিসিআইজে) মোস্তফা ফিরোজের সম্মানে এক নৈশভোজের আয়োজন করে। বাংলা ভিশন জাপান প্রতিনিধি ফখরুল ইসলাম নৈশভোজে উপস্থিত ছিলেন।

টোকিওর অত্যাধুনিক এবং পর্যটন শহর খ্যাত মিনাতো সিটির ওদাইবা শহরের হোটেল হিলটনে আয়োজিত নৈশভোজে বিসিসিআইজে কর্মকর্তা ছাড়াও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ এবং প্রবাসী মিডিয়া ও বাংলাদেশ মিডিয়ার প্রবাসী প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

ভোজসভার শুরুর পূর্বে সফররত মিডিয়া ব্যক্তিত্বকে জাপানে স্বাগত জানিয়ে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। চৌধুরী শাহীনের পরিচালনায় সংক্ষিপ্ত শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিসিসিআইজে সভাপতি বাদল চাকলাদার, গুল মোহাম্মদ ঠাকুর, মঞ্জুর মোর্শেদ, আব্দুর রাজ্জাক, কাজী এনামুল হক প্রমুখ।

ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন মো. শহীদুল ইসলাম নান্নু এবং মিডিয়া কর্মীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন কাজী ইনসানুল হক।

বিসিসিআইজে সভাপতি বাদল চাকলাদার তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে মিডিয়াকে আরো দায়িত্বশীল হয়ে গঠনমূলক এবং তথ্যবহুল সংবাদ প্রচারের আহ্বান জানিয়ে বলেন, মিডিয়া এমনি একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান যেখান থেকে মিসাইল থেকে আরো শক্তিশালী অস্ত্র ছোড়া যায়। মিডিয়ার একটি ভুল তথ্যে বিশ্বযুদ্ধ লাগার মতো পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে। তাই আমি মিডিয়াকে সমরাস্ত্রের চেয়েও বেশি খুরধার মনে করি। যেহেতু আপনি মিডিয়া কর্মী এবং বার্তাপ্রধান একটি প্রতিষ্ঠানের তাই আপনার মাধ্যমে আমরা প্রবাসী হিসেবে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বলে আরো বলিষ্ঠ ভূমিকা পালনের জন্য মিডিয়া কর্মীদের কাছে আহ্বান জানাই।

মো. শহিদুল ইসলাম নান্নু বলেন, মিডিয়াতে বিশেষ করে বাংলাদেশের মিডিয়াতে মাঝেমধ্যে এমনও সংবাদ প্রচার পায় যার সঙ্গে বাস্তবতার কোনো মিল নেই। আমাদের অনুরোধ থাকবে প্রবাস থেকে প্রতিনিধি ছাড়া যদি কোনো সংবাদ পাঠানো হয় তা যেন ন্যূনতম যাচাই করা হয়। কারণ, সমাজে কিছুসংখ্যক লোক থাকে তারা যে কোনোভাবেই মিডিয়ায় প্রচার পেতে মরিয়া হয়ে ওঠে। এই জন্য বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে তারা ভুল তথ্য পাঠায়।

বার্তাপ্রধান এস কে মোস্তফা ফিরোজ বলেন, প্রবাস থেকে যে ভুল তথ্য যাচ্ছে না তা কিন্তু নয়। আর এই ভুল তথ্যগুলো প্রবাসীরাই পাঠিয়ে থাকেন। তাই আপনারা যদি স্থানীয় মিডিয়াকর্মীদের আরো সহযোগিতা করতে পারেন তা হলে ভুল তথ্য কমানো সম্ভব। কারণ, প্রতিনিধিরা ভুল তথ্য পাঠালে তাকে জবাবদিহি করতে হবে।
আপনাদের একতা সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। প্রবাসে অর্জিত আপনাদের অভিজ্ঞতাগুলো যদি একতার মাধ্যমে বাংলাদেশে কাজে লাগাতে পারেন নিঃসন্দেহে দেশ সমৃদ্ধ হবে। কারণ প্রবাসীরা হচ্ছেন দেশের অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি। এই শক্তিকে সঠিকভাবে কাজে লাগাতে একতার বিকল্প নেই।

rahmanmoni@gmail.com

সাপ্তাহিক