সিরাজদিখানে স্কুল ছাত্র আলিফ হত্যা মামলার আসামী রাজার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

জসীম উদ্দীন দেওয়ান : জেলার সিরাজদিখান উপজেলার রামকৃষ্ণদি গ্রামে মোবাইল ফোনের কারনে খুন হয় স্কুল ছাত্র আলিফ। জনগন হত্যাকারীদের চারজনকে আটক করে পুলিশকে সোপর্দ করলেও টাকার বিনিময়ে তিনজনকে ছেড়ে দেয় সিরাজদিখান পুলিশ। শুধু হৃদয় একাই আলিফকে হত্যা করেছে এই মর্মে জোর করে আলিফের চাচাকে দিয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে হৃদয়কে আদালতে পাঠানো হয়। হত্যায় জড়িতদের ছেড়ে দেয়া এবং মামলা থেকে হত্যাকারীদের নাম বাদ দেয়াকে কেন্দ্র করে সিরাজদিখানে আন্দোলনের ঝড় ওঠে।

আলিফের স্বজনরা সিরাজদিখান থানার ওসির উপর আস্থা হারিয়ে ২০ ডিসেম্বর ডিবি পুলিশের কাছে মামলার তদন্ত হস্থান্তরের আবেদন করলে মামলার তদন্তভার চলে আসে ডিবি পুলিশের হাতে। তারই ধারাবাহিকতায় ৫ জুন বিকালে ঢাকার কেরানীগঞ্জের আলম টাওয়ার থেকে রাজাকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ। আর বাকী দুজন আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানান গোয়েন্দা ওসি আবুল কালাম গোয়েন্দা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়া রাজার ১৬৪ ধারায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রমানিত হয় ওসি ইয়ারদৌস টাকা খেয়ে হত্যা মামলার আসামীদের ছেড়ে দিতে কার্পন্য করেন্না। আলিফের স্বজন রুবেল এমন মন্তব্য করে ওসি ইয়ার দৌসেরও বিচার দাবী করেন।

Leave a Reply