বিচারপতিদের বিরুদ্ধে তদন্ত আইনের মাধ্যমে নির্ধারণ হবে

মুন্সীগঞ্জে অ্যার্টনি জেনারেল
অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, উচ্চ আদালতের বিচারপতিদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ কীভাবে তদন্ত করা হবে, তা আইনের মাধ্যমে নির্ধারণ করা হবে বলে শুনানিতে উল্লেখ করা হয়েছে। গতকাল শনিবার দুপুরে মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের কনকসার ও মৌছামান্দ্রা গ্রামের নিজ বাড়িতে দরিদ্র মানুষের মধ্যে ইফতারসামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। উচ্চ আদালতের বিচারক অপসারণ-সংক্রান্ত সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী হাইকোর্টের অবৈধ ঘোষণা করার রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিল শুনানি প্রসঙ্গে তাকে উপস্থিত সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন।

অ্যার্টনি জেনারেল বলেন, শুনানিতে আমি বলিনি, জাতীয় সংসদ বিচারপতিদের তদন্ত করবে বা বিচার করবে। বলা হয়েছে, বিচারপতিদের ব্যাপারে কীভাবে তদন্ত করা হবে, তা আইনের মাধ্যমে নির্ধারিত হবে। শেষ মুহূর্তে যদি মনে হয়, কোনো বিচারপতি অদক্ষ, অসমর্থ বা অসদাচরণে অভিযুক্ত_ তাহলে জাতীয় সংসদ রেজুলেশন নিয়ে তাদের অপসারণের বন্দোবস্ত করতে পারে। আর এটাই যদি হয়, আমার মতে, তাহলে জনগণের স্বার্বভৌমত্ব বজায় থাকবে। তাই এখন রায়ের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

এর আগে তিনি মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার কনকসার ও তার নিজ গ্রাম মৌছামান্দ্রা গ্রামে নিজ বাড়িতে প্রায় চারশ’ দরিদ্র ও অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেন। এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন মুন্সীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ সেলিম, শহীদ-ই-হাসান তুহিন, লেখক-গবেষক সাইদুল ইসলাম খান অপু, কনকসার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম, কামারখাড়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আনিসুর রহমান হালদার প্রমুখ।

সমকাল