আলাউদ্দিন আলী: একদিনে ৩০ গানের রেকর্ড!

আলাউদ্দিন আলী বাংলাদেশের বরেণ্য সুরকার, সংগীত পরিচালক। এ পর্যন্ত তার ঝুলিতে জমা হয়েছে ৮টি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এর মধ্যে ১৯৭৮ থেকে ১৯৮০ সাল পর্যন্ত টানা তিনবার পুরস্কৃত হয়ে সংগীত পরিচালক হিসেবে রেকর্ড গড়েছিলেন তিনি। যে রেকর্ড আজও কেউ ভাঙতে পারেননি।

এরকম আরও অনেক রেকর্ড রয়েছে আলাউদ্দিন আলীর বর্ণাঢ্য সংগীত জীবনে। স্মৃতি রোমন্থন করতে গিয়ে এই কিংবদন্তি জানান, ১৯৮৭ সালের ২৬ জুলাই একই দিনে তার সুর-সংগীতে ৩০টি গানের রেকর্ডিং হয়েছে। মুম্বাই, কলকাতা ও ঢাকায় একই দিনে গানগুলোর রেকর্ডিং হয়। যেমন উদাহরণ বিশ্বের খুব বেশি সংগীত পরিচালকের ক্যারিয়ারে নেই।

সম্প্রতি ঈদের জন্য মাছরাঙা টেলিভিশনের নিয়মিত আয়োজন ‘রাঙা সকাল’-এর বিশেষ পর্বে অতিথি হয়ে এসেছেন আলাউদ্দিন আলী। এতে তিনি তার বলা, না বলা অনেক কথাই ব্যক্ত করেছেন।

‘রাঙা সকাল’-এর এই বিশেষ পর্বটি প্রচারিত হবে ঈদের ৪র্থ দিন, সকাল ৭টায়, মাছরাঙা টেলিভিশনে। রুম্মান রশীদ খান ও লাবন্য’র উপস্থানায় অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করেছেন রকিবুল আলম ও জোবায়ের ইকবাল।

প্রসঙ্গত, ‘ও আমার বাংলা মা তোর’, ‘সূর্যোদয়ে তুমি সূর্যাস্তেও তুমি’, ‘যে ছিল দৃষ্টির সীমানায়’, ‘ভালোবাসা যত বড় জীবন ততো বড় নয়’, ‘এই দুনিয়া এখন তো আর’, ‘আছেন আমার মোক্তার’, ‘শত জনমের স্বপ্ন তুমি আমার জীবনে এলে’, ‘সুখে থাকো ও আমার নন্দিনী’, ‘যেটুকু সময় তুমি থাকো কাছে’, ‘এমনও তো প্রেম হয়’, ‘কেউ কোনোদিন আমারে তো কথা দিলো না’, ‘পারিনা ভুলে যেতে’, ‘জন্ম থেকে জ্বলছি মাগো’, ‘একবার যদি কেউ ভালোবাসতো’, ‘দুঃখ ভালোবেসে প্রেমের খেলা খেলতে হয়’, ‘বাবা বলে গেলো আর কোনোদিন’, ‘বন্ধু তিন দিন তোর বাড়িত গেলাম’, ‘শেষ করোনা শুরুতে খেলা’, ‘ইস্টিশনের রেলগাড়িটা’- এরকম প্রায় চার হাজার সফল গানের সংগীত পরিচালক আলাউদ্দিন আলী।

বাংলা ট্রিবিউন