বিনোদপুরে মা ও মেয়ে বিপুল অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ!

মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলার পঞ্চসার ইউনিয়নের বিনোদপুর গ্রামের জামালের কন্যা মাসুদা (৪০) ও তার মেয়ে সৃতি (মা ও মেয়ের) খপ্পরে পরে অনেক গৃহবধু স্বর্বসান্ত হয়েছে। এই গ্রাম থেকে নগদ প্রায় ১০ লাখ টাকা ও ১২ ভরি স্বর্ণ নিয়ে চম্পট দিয়েছে। যাদের কাছ থেকে মা ও মেয়ে টাকা স্বর্ণ হাতিয়েছে তারা হচ্ছেন, গৃহবধু ফাতেমা ১ লাখ ৩০ হাজার, ঝর্ণা ১ লাখ, ময়না ৯০ হাজার। তারা এখন কিস্তি উঠিয়ে সেই টাকা পরিশোধের চেষ্ঠা করছে।

এছাড়া অনেকের টাকার পরিমাণ পাওয়া যায়নি। কিন্তু তাদের নাম পাওয়া গেছে। তারা হচ্ছেন আসমা, মিনা, রেজিয়া, হাছনা, রিনা। এদের সংসার ভেঙ্গে যাওয়ার আশংকায় এই নিউজের সাথে স্বামীর নাম প্রকাশ করা হলো না। তবে এই এলাকায় তোলপাড় চলছে।

মা ও মেয়ে স্থানীয়ভাবে ঝাড়ফোকের প্রতারণার আশ্রয়ে বর্ষিকরণের মাধ্যমে গৃহবধুদের আকৃষ্ঠ করে। গৃহবধুরা তাদের অসুস্থ্য সন্তানদের নিয়ে মা ও মেয়ের ফকির বাড়িতে গেলে মাসুদা তাদের দেখে বলেন, তোর সন্তানতো ২৪ ঘন্টার মধ্যে মারা যাবে। এতে গৃহবধুরা বিচলিত হয়ে পরে। তখন মাসুদা বলে তোরা এ যাত্রায় বেঁচে যেতে পারিস। সেটা হলো তোদের ঘরের স্বর্ণ আমার কাছে নিয়ে আসতে হবে। সেই স্বর্ণ জিনের মাধ্যমে পানি পড়ায় সেই পানি পানে তোদের সন্তান বেঁচে যাবে। এইভাবে মা ও মেয়ে টাকা ও স্বর্ণ আগতোদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেয়। পরে কেউ কেউ টাকা ও স্বর্ণ ফেরত চাইলে মা ও মেয়ে জিনের আদেশ হলেই তোমরা তা ফেরত পাবে। এই ভাবে তাদেরকে ঘুরাতে ঘুরাতে হঠাৎ করে মা ও মেয়ে এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। তাদের পালিয়ে যাওয়ার পর এলাকায় এ বিষয়টি জানা জানি হয়।

মুন্সিগঞ্জ নিউজ

Comments are closed.