পাটের বস্তা ব্যবহার না করায় জরিমানা

মুন্সীগঞ্জে পাটের বস্তা ব্যবহার না করায় তিন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। আদালতটির বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ডা. আশিক তায়েব জানান, পাটজাত দ্রব্য সামগ্রী বাধ্যতামুলক ব্যবহার আইন-২০১০ অনুযায়ী ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়।

এতে সতর্কতামূলক প্রচারণা এবং এই প্রতিকী জরিমানা করা হয়। মুন্সীগঞ্জ পৌর সভার মুন্সীরহাটের দু’টি প্রতিষ্ঠানকে ৮ হাজার টাকা এবং মুন্সীগঞ্জ শহরের একটি ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠানকে ৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

তিনি জানান, বাজারগুলোতে পাটের বস্তার ব্যবহারের সুফল এবং সতর্কতামূলক বিপুল সংখ্যক লিফলেট বিতরণ করা হয়। জরিমানার চেয়ে সচেতনতায় বেশী গুরুত্ব প্রদান করা হয়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জানান, বাজার ঘুরে মনে হয়েছে ফিরে আসছে সোনালী আঁশের বাংলাদেশ।

হাইকোর্টে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের মোবাইল কোর্টকে অবৈধ ঘোষণার পর বেশ কিছুদিন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা বন্ধ ছিল। এতে হাট বাজারে ভেজাল দ্রব্য কেনা বেচাসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠে।

আর চটের বস্তার ব্যবহারেও কিছুটা গা ছাড়া ভাব লক্ষ্য করা যায়। তবে সুপ্রিম কোর্টের স্থগিতাদেশের প্রেক্ষিতে আবার সাময়িকভাবে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা চলছে। বৃহস্পতিবার তাই এখানে মোবাইল কোর্টের তৎপরতা লক্ষ্য করা যায়।

জনকন্ঠ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *