শ্রীনগরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে স্কুল ছাত্রীর নগ্ন ছবি নেটে!

থানায় অভিযোগের চারদিন পরও কোন ব্যবস্থা নেয়নি পুলিশ
আরিফ হোসেন: শ্রীনগরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে স্কুল ছাত্রীর নগ্ন ছবি ও ভিডিও নেটে ছড়িয়ে দিয়েছে এক লন্ডন প্রবাসী। বিভিন্ন মোবাইল ফোন ও কম্পিউটারে এগুলো ছড়িয়ে পরায় উপজেলার হাঁসাড়া কালী কিশোর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ওই ছাত্রীর স্কুলে যাওয়া বন্ধ হয়ে গেছে। মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত ওই ছাত্রী দুবার আতœহত্যা করতে গেলেও পরিবারের লোকজনের চোখে পরে যাওয়ায় কোন অঘটন ঘটেনি। এঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা গত বুধবার রাতে শ্রীনগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করছেন। কিন্তু পুলিশ এখনো পর্যন্ত ওই এলাকা পরিদর্শনে যায়নি এবং কার্যকর কোন ব্যবস্থা নেয়নি। বরং থানায় অভিযোগ করার কারনে লন্ডন প্রবাসী রুবেল মাঝি (৩০) এর বাবা উপজেলার পশ্চিম হাঁসাড়া গ্রামের আওলাদ মাঝি তার লোকজন নিয়ে মেয়ের বাবাকে অভিযোগ উঠিয়ে নেওয়ার জন্য হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। অপরদিকে ওই ছাত্রী অভিযোগ করেন রুবেলের দুই ভাই রিফাত ও রায়হান তাদের বন্ধু বন্ধব নিয়ে তাকে নানা ভাবে হয়রানি করছে।

ছাত্রীর পরিবার ও স্থানীয়রা জানায়, ওই ছাত্রী সপ্তম শ্রেণীতে পড়ার সময় রুবেল মাঝি তাকে ফুঁসলিয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। প্রায় চার বছর আগে রুবেল লন্ডন চলে যায় এবং আকলিমা নামে রুবেলের এক আত্মীয়কে দিয়ে ওই ছাত্রীর কাছে একটি আধুনিক মোবাইল ফোন পাঠায়। মোবাইল ফোনে রুবেলের সাথে ওই ছাত্রীর প্রায় সময়ই ভিডিও কলে কথা হতো। কথা বলার বিভিন্ন সময়ে রুবেল কথার মারপ্যাচে ওই ছাত্রীকে দুর্বল করে কিছু নগ্ন ছবি ও ভিডিও হাতিয়ে নেয়। একপর্যায়ে তাদের সম্পর্কের কথা রুবেলের পরিবার জেনে যায়। প্রথমে বাঁধা সৃষ্টি করলেও পরে তারা দরিদ্র পরিবারের ওই ছাত্রীকে ছেলের বউ করে নিতে রাজি হয়। কিন্তু কিছু দিন আগে রুবেলের পরিবার কোন কারণ ছাড়াই বেঁকে বসে এবং ছেলের উপর চাপ সৃষ্টি করে। রুবেল প্রথমে নিরব থাকলেও পরে ওই ছাত্রীকে জানিয়ে দেয় পরিবারের সিদ্ধান্তের বাইরে যাওয়া তার পক্ষে সম্ভব নয়। এনিয়ে রুবেলের সাথে ওই ছাত্রীর কথা কাটা-কাটি হয়। এর জের ধরে রুবেল ওই ছাত্রীর নগ্ন ভিডিও মোবাইল ফোন ও নেটে ছড়িয়ে দেয়। বিষয়টি ওই এলাকায় ভাইরাল হয়ে যাওয়ায় ওই ছাত্রী দুবার গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করতে যায়। কিন্তু পরিবারের লোকজনের চোখে পরে যাওয়ায় দুবারই সে বেঁচে যায়।

কয়েকদিন আগে বিষয়টি শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: জাহিদুল ইসলাম জানতে পারেন এবং উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য শ্রীনগর থানার ওসিকে নির্দেশ দেন। এর পরই ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে গত বুধবার শ্রীনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

স্থানীয়রা জানায়, রুবেল ছোট বেলা থেকেই বখাটে। সে হাঁসাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ার সময় অনৈতিক কর্মকান্ডের কারনে স্কুল কতৃপক্ষ তাকে টিসি দিয়ে বের করে দেয়। পরে সে বেজগাও এলাকার এক আত্মীয়র সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে এবং সর্বস্ব লুটে সটকে পরে। পরে রুবেলের টার্গেটে পরে ওই স্কুল ছাত্রী।

এবিষয়ে হাঁসাড়া ইউপি চেয়ারম্যান সোলায়মান খান বলেন, বিষয়টি খুবই স্পর্শ কারত, এর উপযুক্ত বিচার হওয়া উচিত।

শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম আলমগীর হোসেন বলেন, অভিযোগ পাওয়া গেছে। কিন্তু প্রধান অভিযুক্ত লন্ডনে থাকায় আইনগত জটিলতা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *