শ্রীনগরে হাইওয়ে থানার ভবন দখল করে ভাড়া দিয়েছে প্রভাবশালী এক ভূমিদস্যু

আরিফ হোসেন: ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের হাঁসাড়া হাইওয়ে থানার পুরাতন ভবন দখল করে তা মাসিক ১২ হাজার টাকায় ভাড়া দিয়েছে প্রভাবশালী এক ভূমিদস্যু। বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম মোর্শেদ তালুকদাদেরর নেতৃত্বে হাইওয়ে থানা পুলিশ তাদের ভবন থেকে ভাড়াটিয়াদের বের করে দিয়ে তা দখল মুক্ত করেন।

সরজমিনে জানা গেছে, ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের শ্রীনগর উপজেলার হাঁসাড়া এলাকায় হাইওয়ে পুলিশ সড়ক ও জনপদের একোয়ার কৃত জমিতে দির্ঘদিন ধরে ফাঁড়ি বসিয়ে দায়িত্ব পালন করে আসছিল। সম্প্রতি তা থানা হিসাবে স্বীকৃতি পেলে টিনশেট বিল্ডিংয়ের ৮টি কক্ষে স্থান সংকুলান না হওয়ায় তারা সিরাজদিখান উপজেলার নিমতলা এলাকার ভাড়া ভবনে স্থানান্তিরিত হয়। স্থানান্তরিত হওয়ার সময় কক্ষগুলো তালা দিয়ে রেখে যান।

কয়েকদিন পূর্বে হাঁসাড়া এলাকার বি,রহমানের ছেলে ফারুক রহমান বিদ্যুতের লাইন সরানোর ঠিকাদার মনির হোসেনের কাছে মাসিক ১২ হাজার টাকায় ভাড়া দিয়ে ১ মাসের ভাড়া এডভান্স নেন এবং কক্ষগুলোর তালা ভেঙ্গে তা মনির হোসেনের লোকজনকে বুঝিয়ে দেন। বৃহস্পতিবার পুলিশ তাদের ভবন দখল মুক্ত করার জন্য আসলে ঠিকাদার মনির হোসেনের প্রায় ৩৫ জন লোক কক্ষগুলো ছেড়ে দেন। এসময় ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন ফারুকের চাচাতো ভাই মোহাম্মদ ও ভাগনে সেলিম। প্রথমে তারা ভবনটি বি,রহমানের জমির উপর নির্মিত হয়েছে দাবী করলেও পরে অবস্থা বেগতিক দেখে সটকে পরেন। হাঁসাড়া হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম মোর্শেদ তালুকদার জানান, এর আগেও বি,রহমানের লোকজন জায়গাটি দখলের চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়। এব্যাপারে ফারুক রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি প্রথমে নিজেদের জমি দাবী করেন। কিন্তু সড়ক ও জনপদের জমি কি করে তাদের হলো এপ্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তিন চার মাস পর রাস্তার ফোর লেনের কাজের জন্য ভবনটি এমনিতেই ভেঙ্গে ফেলবে তাই ভাড়া দিয়েছিলাম। এটা তেমন কিছুনা।

Comments are closed.