লৌহজংয়ে অষ্টমী স্নানোৎসব পালিত

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অষ্টমী স্নানোৎসবে লৌহজংয়ের পদ্মার পাড়ে উৎসবমুখর পরিবেশে পালিত হয়েছে। ‘হে মহা ভাগ পদ্মা, হে লৌহিত্য আমার পাপ হরণ কর’- এ মন্ত্র উচ্চারণের মধ্যদিয়ে পাপ মোচনের আশায় পূণ্যার্থীরা লৌহজংয়ের পদ্মা নদীতে স্নানে অংশ নেন। স্নানের সময় ফুল, বেলপাতা, ধান, দূর্বা, হরিতকি, আম পাতা ইত্যাদি পিতৃকূলের উদ্দেশ্যে পদ্মার জলে অর্পণ করেছেন তারা।

মঙ্গলবার স্নানের লগ্ন শুরু হয় সকাল ৮টা ১০ মিনিটে। লগ্ন শুরুর পরপরই স্নানার্থীদের ঢল নামে পদ্মায়। উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন ও আশপাশের ৩টি উপজেলা থেকে স্নান ঘাটে পদ্মার পাড়ে দল বেঁধে আবার কেউবা এককভাবে সনাতন ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী স্নানে অংশ নেন। এই উপলক্ষে পদ্মার পাড়ে আইন-শৃংখলা বাহিনীর ব্যাপক উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

এদিকে স্নানোৎসব উপলক্ষে পদ্মার পাড়ে মঙ্গলবার আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে পুণ্য স্নান উদযাপন পরিষদ।
অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন এ স্নান উৎসবের উদ্যোক্তা ডা. গোবিন্দ চন্দ্র দাস। বক্তব্য রাখেন- লৌহজং বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ বাবু কেশব চন্দ্র দাস, সুনীল চন্দ্র ঘোষ, বাসুদেব পাল, বিজয় সরকার, স্বপন পাল, অরুন দাস, কালী জীবন দাস, সত্যরঞ্জন দাস, রতন পাল, রতন হালদার, কানু শীল, বিশ্বনাথ পাল প্রমুখ।

বাসস

Comments are closed.