শ্রীনগরে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্যের নির্যাতনে ৩ দিন ধরে হাসপাতালে কাতরাচ্ছে নবম শ্রেণীর এক ছাত্র

আরিফ হোসেন: শ্রীনগরে নবম শ্রেণীর এক ছাত্রকে নির্যাতন করে মারাত্মক আহত করেছে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির এক সদস্য। নির্যাতনের শিকার উপজেলার কোলাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র আকিব হোসেন (১৬) এখন ঢাকা মিটফোর্ট হাসপাতালের নাক-কান-গলা ইউনিটের বেডে যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে।এর আগে আকিবকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মিটফোর্ট হাসাপাতালে প্রেরণ করেন।

স্থানীয়রা জানান, গত ৪ মার্চ কোলাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর কয়েকজন ছাত্র ভর্তি সংক্রান্ত জটিলতা নিয়ে প্রধান শিক্ষকের রুমে যান। সেখানে প্রধান শিক্ষকের সাথে তাদের ভর্তির অর্থ লেনদেন নিয়ে কথাবার্তা চলছিল। এমন সময় সেখানে উপস্থিত বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য গোলাম মোস্তফা ছাত্রদের সাথে তর্কে জড়িয়ে পরে। একপর্যায়ে সে ক্ষিপ্ত হয়ে নবম শ্রেণীর ছাত্র আকিবকে বেধরক মারধর শুরু করে। আকিব মেঝেতে পরে গলে অন্য ছাত্ররা ভয়ে দৌড়ে রুম থেকে বেরিয়ে যায়। মারধরের কারনে আকিবের কান দিয়ে রক্ত ঝরতে থাকে। পরে আকিবের আতœীয় স্বজন বিদ্যালয়ে গিয়ে আকিবকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। সেখান থেকে আকিবকে ঢাকার মিটফোর্ট হাসপাতালে প্রেরণ করে। বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নেছারউল্লাহ সুজন ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা যতন মারমাকে অবহিত করে শ্রীনগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন আকিবের মামা নাহিদ হাসান। এব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আ ঃ বাতেন বলেন, ছাত্রের গায়ে হাত তোলা অন্যায়। তবে বিষয়টি নিয়ে বিদ্যালয়ে মিটিং আহবান করা হয়েছে। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য গোলাম মোস্তফা বলেন, অন্য আরেক ছাত্র মনে করে আকিবকে মারধর করা হয়েছে। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য হিসাবে তাকে শাসন করার অধিকার আমার আছে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আজিজুল হক বলেন, বিষয়টি অমানবিক। লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Comments are closed.