রাস্তা কেটে বালু তোলার পাইপ!

প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই মুন্সীগঞ্জ সদর ও টঙ্গিবাড়ী উপজেলার সীমান্তবর্তী আলদীবাজার-মাকহাটি সংযোগ সড়ক কেটে পাইপ স্থাপন করে কাজলরেখা খাল থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। সদরের মোল্লাকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মহসিনা হক কল্পনার নির্দেশে সড়ক কাটা ও বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। নির্দেশ দেওয়ার বিষয়টি চেয়ারম্যান স্বীকারও করেছেন। দীর্ঘদিন ধরে বেহাল অবস্থায় থাকা সড়কটি মেরামতের পরিবর্তে উল্টো কেটে বালুর পাইপ স্থাপনে ফাটল দেখা দেওয়ায় তা চলাচলকারীদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।

সরেজমিন দেখা গেছে, সংযোগ সড়কটি ইট দিয়ে সলিং করার বছর দুই পরেই বিভিন্ন স্থানে ইট খুলে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ইটের সলিং করা এ সড়কটি দীর্ঘ বছরেও মেরামত না করায় চলাচলকারী লোক ক্ষুব্ধ। এর মধ্যে বেশ কিছু দিন ধরে মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের নির্দেশে আহসান মাঝিসহ কতিপয় ব্যক্তি সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের অনুমতি না নিয়েই বেহাল অবস্থায় থাকা সড়কটি দুই দিক দিয়ে কেটে পাশের জমিতে বালু ভরাটের জন্য পাইপ স্থাপন করে। পাশাপাশি সংযোগ সড়ক সংলগ্ন কাজলরেখা খাল থেকে মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করছে। এতে সড়কটি আরও ভেঙে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এ ছাড়া সরকারি খাল থেকে উত্তোলন করা বালু ব্যবসার মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগও উঠেছে তাদের বিরুদ্ধে।

এ প্রসঙ্গে মোল্লাকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মহসিনা হক কল্পনা সমকালকে বলেন, ‘সড়কের পাশের একটি জমি ভরাট করতে কাজলরেখা খাল থেকে বালু কাটার জন্য আহসান মাঝিসহ দুই যুবককে বলেছি। মাকহাটি ও আশপাশের এলাকা দিয়ে প্রবাহিত রজতরেখা ও কাজলরেখা খাল ভরাট হয়ে যাওয়ায় নৌ চলাচল বন্ধ হয়ে পড়েছে। তাই বালু তুলে খাল খনন করা প্রয়োজন।’ এ জন্য প্রশাসনের অনুমতি নেওয়া হয়েছে কি-না জানতে চাইলে তিনি তা এড়িয়ে যান।

সমকাল

Comments are closed.