শ্রীনগরে ইউপি সদস্যের বাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলা নারী পুরুষ সহ আহত

পুলিশ আসামি ধরে ছেড়ে দেয়ায় জনমনে ক্ষোভ
শ্রীনগরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইউপি সদস্যের বাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলায় নারী-পুরুষ সহ একই পরিবারের ৭ জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের পর পুলিশ আসামীকে ধরে ছেড়ে দেয়ায় জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে ভাগ্যকুল ইউনিয়নের মান্দ্রা গ্রামের ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার নাজিম সরদারের বাড়ীতে। নাজিম সর্দার বলেন, বাড়ীর সিমানার বেড়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে গত শুক্রবার সকালে প্রতিবেশী অপু সর্দারের সাথে ঝগড়া হয়।

দূপুরে অপু সর্দার বহিরাগত ২০/২২ জন সন্ত্রাসী সহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তার বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করে। এ সময় সন্ত্রাসীরা এলোপাথারী ভাবে পিটিয়ে ও কুপিয়ে তার পরিবারের ৭ জনকে গুরুতর আহত করে। আহতরা হলেন নাজিম সর্দারের মা রওশন আরা বেগম (৭৫), তার স্ত্রী মমতাজ বেগম (৪২), মেয়ে ৭ম শ্রেণির ছাত্রী নুপুর (১৩), ৯ম শ্রেণির ছাত্রী সিমা (১৫),তার ভাই মোঃ ঝন্টু সরদার (২৪), হৃদয় সরদার (২৬) ও মেয়ের জামাতা রাসেল শেখ (৩২)কে আহত করে।

আহতদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ দিকে সংবাদ পেয়ে শ্রীনগর থানার এস আই রুবেলের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে অপু সর্দার ও তার ছেলে তৈয়ব সর্দারকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসার পথে রহস্যজনক কারণে ছেড়ে দেয়।

উল্লেখ্য অপু সর্দারের বিরুদ্ধে শ্রীনগর থানায় অন্য একটি মামালার ওয়ারেন্ট থাকার পরও ছেড়ে দেয়ায় পুলিশের প্রতি জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম আলমগীর হোসেন বলেন, এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। আসামী ধরে ছেড়ে দ্ওেয়ার বিষয়ে তিনি অবগত নন।

মুন্সিগঞ্জ নিউজ

Comments are closed.