ক্রসফায়ারে নিহত শীর্ষ সন্ত্রাসী শাহজালাল মিজি আহত ৩ পুলিশ

মুন্সীগঞ্জের শীর্ষ সন্ত্রাসী হত্যাসহ ২২ মামলার পলাতক আসামী শাহজালাল মিজি (৩৩) পুলিশের সাথে ক্রস ফায়ারে নিহত হয়েছে। সোমবার ভোরে শহরের বৈখরের কাঠবাগানে গোলাগুলিতে সে নিহত হয়। এই সময় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়। পায়ে গুলিবিদ্ধ পুলিশ কনেস্টবল সোহরাব হোসেনকে (২৮), ডিবি পুলিশের এসআই মো. হেমায়েত মোল্লা (৩৭) ও পুলিশ কনেস্টবল মোহাম্মদ সোহেব মিয়াকে (২৫) ভোর রাত ৪ টার দিকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ দু’টি বিদেশী পিস্তল, দু’টি ম্যাগজিন, পিস্তলের গুলির পাঁচটি খোসা, দু’টি চাইনিজ কুড়াল, একটি রাম দা, চাপাতি একটি ও দু’টি ছোরা উদ্ধার করে। শাহ জালাল মিজি শহরের দক্ষিণ কোর্টগাঁও গ্রামের ঝিন্টু মিজির পুত্র। সে ছিল শহরের আতঙ্কিত নাম। তার নানা অপতৎপরতায় অতিষ্ঠ ছিল শহরবাসী। তার মৃত্যুর খবরে শহরে স্বস্থি ফিরেছে।

মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম জানান, তার বিরুদ্ধে একটি হত্যা, ৫টি অস্ত্র আইনে, একটি ডাকাতি, একটি দস্যুতা, দু’টি চাঁদাবাজি, একটি মাদক ও একটি সরকারী কাজে বাঁধাদানসহ অন্যন্য ঘটনায় আরও ৯টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে ৭টি ওয়ারেন্ট রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সে পলাতক থেকে নানা অপরাধ করে যাচ্ছিল।

এদিকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি আহত পুলিশ সদস্যদের দেখতে সোমবার বেলা ১১ জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজান ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট একেএম শওকত আলম মজুমদার আসেন। এর আগে আহত এই পুলিশ সদস্যদের দেখতে আসেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম। তাঁরা পুলিশ সদস্যের চিকিৎসার খোঁজখবর করেন।

পুলিশ জানায়, রবিবার বিকাল সোয়া ৫টায় তাকে মুন্সীগঞ্জ শহরের দক্ষিণ কোটগাঁও লিচু তলা থেকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাবাদ করা হয়। তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গভীর রাতে তাকে নিয়ে শহরের পারুলপাড়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়। রাত আড়াই টায় পৌরসভাধীন বৈখর গ্রামের ময়না মোল্লার কাঠবাগানের রাস্তায় পৌছামাত্র আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা ১০/১২ সন্ত্রাসী আগ্নেয়াস্ত্র দেশীয় অস্ত্র নিয়ে পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে শাহজালালকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। গোলাগুলির এক পর্যায়ের শাহ জালাল পুলিশের গাড়ি থেকে লাফিয়ে পালিয়ে যায়। ওত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা গুলি ছুড়তে ছুড়তে পালিয়ে যায়। গোলাগুলি শেষে শাহ জালাল মিঝিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাৎক্ষনিক তাকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎস্যক ভোর ৪টা ১০ মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করে।

জনকন্ঠ
===========

মুন্সীগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী নিহত

মুন্সীগঞ্জের শীর্ষ সন্ত্রাসী এবং ২২ মামলার পলাতক ও ৭ মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি শাহজালাল মিজি (২৮) পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছে। সোমবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে সদরের বৈখর ময়না মোল্লার কাঠ বাগানে বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় তার কাছ থেকে ২টি বিদেশী পিস্তল ও আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

মুন্সীগঞ্জ জেলার পৌর এলাকার দক্ষিণ কোর্টগাও এলাকায় বসবাস করতেন শাহজালাল। তিনি স্থানীয় যুবলীগের কর্মী ছিলেন।

মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম পিপিএম জানান, শীর্ষ সন্ত্রাসী শাহজালালকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে মুন্সীগঞ্জ সদরের বৈখর ময়না মোল্লার কাঠ বাগানে যায় পুলিশ। এক পর্যায়ে শাহজালাল বাহিনী পুলিশের কাছ থেকে তাকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধ হয়। এ সময় শাহজালাল মিজি নিহত হয়। এই ঘটনায় তিনজন পুলিশ সদস্য আহত হয়। শাহজালালের মরদেহ মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

নিহত শাহজালাল ২২ মামলার পলাতক ও ৭ মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি বলে জানান তিনি।

দ্য রিপোর্ট

Comments are closed.