সিরাজদিখানে সংখ্যালঘুদের জায়গা দখলের পায়তারা

মোঃ রুবেল ইসলাম: উপজেলার বয়রাগাদী ইউনিয়নের ছোট পাউলদিয়া গ্রামে স্থানীয় প্রভাবশালীরা কর্তৃক সংঙ্খালঘু পরিবারের ঘরবাড়ী গাছ লাগিয়ে বেড়া দিয়ে জায়গা দখল নেওয়ার পায়তারা করছে।

সাংবাদিকদের নিকট অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ছোট পাউলদিয়া গ্রামের ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথের ২ ছেলে শ্রী পরিতোষ দেবনাথ, প্রানতোষ দেবনাথ ছোট পাউলদিয়া মৌজার জে.এল রেঃ সাং নং ১০২, খতিয়ান নং- ৪৫০, এসএ/ আরএস দাগ নং ৩৮৫/৪৬৫ তে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছে। যে জমিতে ২টি বসতঘর, ১টি মন্দির ও তাদের রান্না ঘড় রয়েছে।

স্থানীয় প্রভাবশালী বয়রাগাদী ইউনিয়নের ছোট পাউলদিয়া গ্রামের তমিজদ্দিন তালুকদারের ছেলে প্রবাসী সিরাজ তালুকদারের স্ত্রী ময়না বেগম, মৃত লালমিয়া তালুকদারের ছেলে আমজাদ তালুকদার, রব তালুকদারের ছেলে গিযাস উদ্দিন তালুকদার, নূরু ইসলাম তালুকদারের ছেলে জহির তালুকদর গং সহ স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল ওই জমি দখলের জন্য বিভিন্নভাবে পায়তারা চালায়।

তারা ওই জায়গার উপর কাঠগাছ ও বাশের বেড়া দেয় যার মালিক সংঙ্খালঘু ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথের পরিবারের সদস্যরা। ওই জমির প্রকৃত জমি ক্রয় সূত্রে মালিক শ্রীমতি আরতি রানী দেবনাথ স্বামী ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ ও তাদের ২ ছেলে শ্রী পরিতোষ দেবনাথ ও প্রানতোষ দেবনাথ।

এ ব্যাপারে ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ বলেন, ১৯৭৪ সালে ছোট পাউলদিয়া গ্রামের আইসাল আলী গাজীর ছেলে মুন্সুর আলী গাজীর কাছ থেকে ছোট পাউলদিয়া মৌজার জে.এল রেঃ সাং নং ১০২, খতিয়ান নং- ৪৫০, এসএ/ আরএস দাগ নং ৩৮৫/৪৬৫ দাগের ২২ শতাংশ জায়গা সাবকবলা রেজিট্রি করে ক্রয় করি। সেই দলিল আমার কাছে আছে। এখন বাড়ির পাশে সরকারী ইটের রাস্তা আমার জায়গার উপর হওয়ায় ১৯ শতাংশ জায়গার মধ্যে আছি। সিরাজ তালুকদারের স্ত্রী ময়না বেগম গংদের এই দাগে কোন দলিল নেই। গত বছর পর্যন্ত সরকারী খাজনা পরিশোধ করেছি। এখন সংখ্যালঘু বলে জোড় করে গাছ লাগিয়ে বেড়া দিয়ে জায়গা দখলের পায়তারা করছে। আমাগো জায়গায় জোড় করে গাছ লাগায়, দেশে সংখ্যালঘুরা বিচার পায়না।

এ ব্যাপারে বয়রাগাদী ১নং ওর্য়াড সাবেক সদস্য মোহাম্মদ আলী বলেন, এই সম্পত্তির মালিক ছোট পাউলদিয়া গ্রামের ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ ও ২ ছেলে। আমি ৪ বার ওই বাড়ির মাপার সময় ছিলাম। কাগজ পত্র সব কিছুই ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ ও তার ২ ছেলের নামে রয়েছে।

বয়রাগাদী ১নং ওর্য়াড সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান সাছুল ইসলাম বলেন, খতিয়ান নং-৪৫০, এসএ/ আরএস দাগ নং – ৩৮৫/৪৬৫ দাগের ২২ শতাংশ জায়গা ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ ও তার ২ ছেলে শ্রী পরিতোষ দেবনাথ, প্রানতোষ দেবনাথের নামে রয়েছে। এলাকার মুরব্বী শেখ আবুর ছেলে ইব্রাহীম শেখ (৬৬) বলেন, পঞ্চাশ বছরের বেশী সময় ধরে এই জায়গা ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ ও তার পরিবারের ভোগ করছে এখন ওরা হিন্দু সংখ্যালঘু বিধায় ওদের উপর প্রভাবশালিরা জুলুম করছে। দেশের আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া দরকার।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত নূরু ইসলাম তালুকদারের ছেলে জহির তালুকদার বলেন, আমি ওখানে বেরা দিয়ে কোন গাছ লাগাইনি। যারা ঐ স্থানে গাছ লাগিয়েছে ঐ জায়গা তাদের হতে পারে।

এ ব্যাপারে বয়রাগাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেযারম্যান গাজী মোঃ আলাউদ্দিন বলেন, এই জায়গার প্রকৃত মালিক ছোট পাউলদিয়া গ্রামের ধীরেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ ও তার ২ ছেলে শ্রী পরিতোষ দেবনাথ, প্রানতোষ দেবনাথ। প্রভাব খাটিয়ে যারা আজ ওই জায়গায় গাছ লাগিয়েছে তারা অন্যায় কাজ করেছে।

স্থানীয়রা জানান, অসহায় সংখ্যালঘু পরিবার কোন কূল কিনারা না পেয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। সংখ্যালঘু পরিবারটি জানান, যে কোন সময় প্রভাবশালীরা তাদের ঘরবাড়ী ভেঙে জায়গা দখল নিতে পারে। বর্তমানে সংখ্যালঘু পরিবারটি চরম নিরাপত্তায় ভুগছে। তারা প্রাসনের উর্দ্ধোতন কর্মকর্তার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

সময়ের কন্ঠস্বর

Comments are closed.