অলিম্পিক ভিলেজ নির্মাণে ধীরেচলো নীতি সরকারের

পদ্মা-পাড়ে অত্যাধুনিক অলিম্পিক ভিলেজ নির্মাণের যে পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার, তা বাস্তবায়নে এখন ধীরেচলো নীতি ক্রীড়া প্রশাসনের। এর প্রধান কারণ, পদ্মা সেতু।

জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের সচিব অশোক কুমার বিশ্বাস বলেছেন, ‘সব কিছুই নির্ভর করছে পদ্মা সেতুর উপর। কারণ, সরকারের সিদ্ধান্ত আছে অলিম্পিক ভিলেজ নির্মান হবে পদ্মা পাড়ে। সেটা হতে পারে যে কোনো পাড়েই। বিশেষজ্ঞদের মতামতের ভিত্তিতেই জায়গা নির্ধারণ করা হবে। আমরা এর আগে যে জায়গা পছন্দ করেছিলাম সেখানে আর সম্ভব নয়। সেতু নির্মানের পর পদ্মার গতি পথ কেমন হতে পারে তা অনুধাবন করেই জায়গা বাছাই করা হবে। কারণ, বিশাল অর্থ ব্যয়ের কাজ করতে কোনো ঝুঁকি নেয়া ঠিক হবে না। ভাঙ্গনের শিকার হতে পারে বলে আগের পছন্দের জায়গা আমরা আর বিবেচনায় রাখছি না।’

তাহলে কি জায়গা খোঁজার কাজ আপাতত বন্ধ? ‘না। আমরা জায়গা দেখছি। তবে সেটা চূড়ান্ত হবে সেতু নির্মান সম্পন্ন হওয়ার পর। মুন্সিগঞ্জ, মাদারীপুর, শরিয়তপুর এবং নরসিংদীর মধ্যেও আমাদের নজর আছে। শেষ কথা হলো এত বড় পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কোনো তারাহুড়া নয়’- বলেছেন এনএসসি সচিব।

জমির পরিমানের উপর নির্ভর করছে ভিলেজের নকশা ও বাজেট। ‘একটা কমপ্লেক্স করলেইতো হবে না। সেখানে সব খেলার মাঠ থাকতে হবে। অনন্ত ৮ হাজার অ্যাথলেট ও অফিসিয়ালদের আবাসনের ব্যবস্থা থাকতে হবে। আমরা আগে মুন্সিগঞ্জ এলাকায় যে জায়গা দেখে পছন্দ করেছিলাম তার পরিমান ছিল ১২০০ একর। এত বেশি জমি অন্য কোথায় না পাওয়া গেলে সেভাবেই পরিকল্পনা করতে হবে। কমপক্ষে ২০০ একর জমিতো লাগবেই’-বলেছেন অশোক কুমার বিশ্বাস।

বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা বলেছেন, ‘জমি খোজা-খুঁজি চলছে। পদ্মার পাড়ে বেশ কয়েকটি জেলায় জমি দেখা হচ্ছে। ভালো ভেন্যুর অভাবে আমরা বড় কোন গেমস আয়োজন করতে পারি না। যাও এসএ গেমস করছি, তা পরিপূর্ণভাবে করা যাচ্ছে না। বিক্ষিপ্তভাবে হচ্ছে। ফুটবল বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে, ক্রিকেট মিরপুরে, সাইক্লিং দিনাজপুরে, উশু সিলেটেÑএভাবে আন্তর্জাতিক গেমস হয় না। ভবিষ্যতে বাংলাদেশ যাতে এশিয়ান গেমসের মত বড় আসরের আয়োজক হতে পারে সেভাবে পরিকল্পনা চলছে, সেটা মাথায় রেখেই অলিম্পিক ভিলেজ নির্মানের উদ্যোগ।’

কি কি থাকবে এ ভিলেজে? ‘ ইনডোর-আউটডোর মিলিয়ে অন্তত ৩০টি খেলার উপযোগী অবকাঠামো থাকবে। এগুলোর মধ্যে ফুটবল, ক্রিকেট, অ্যাথলেটিক্স, ভলিবল, হকি, শুটিং, সাঁতার, জুডো, হ্যান্ডবল, কাবাডি, বাস্কেটবলতো থাকবেই’- জানিয়েছেন বিওএ মহাসচিব।

জাগো নিউজ

Comments are closed.