জেলা পরিষদ নির্বাচন: মহিউদ্দিনের বিকল্প কে?

শিহাব অাহমেদঃ তফসিল অনুযায়ী অাগামী ২৮ডিসেম্বর সারাদেশে জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। একইদিনে মুন্সিগঞ্জেও এই নির্বাচন অায়োজনের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে।

এখন পর্যন্ত যে সকল প্রার্থীদের নাম শোনা যাচ্ছে এর মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী প্রার্থী জেলা অাওয়ামীলীগের বর্তমান সভাপতি ও বর্তমান জেলা প্রশাসক মহিউদ্দিন অাহমেদ।

বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর মহিউদ্দিন অাহমেদের জেলায় প্রচুর অনুসারী রয়েছে। অাছে জনপ্রিয়তাও।

জেলা পরিষদ নির্বাচনে যারা ভোটদান করবেন তাদের প্রায় প্রত্যেকেই মহিউদ্দিন অাহমেদকেই প্রকাশ্যে সমর্থন জানিয়েছেন। এর কারন বিগত ইউপি নির্বাচনগুলোতে মহিউদ্দিন অাহমেদও তাদের এককভাবে সমর্থন দিয়ে গেছেন।

বর্তমান আইন অনুযায়ী, একজন চেয়ারম্যান, ১৫ জন সদস্য ও সংরক্ষিত আসনের পাঁচজন নারী সদস্য নিয়ে জেলা পরিষদ গঠন করা হবে। চেয়ারম্যানসহ এই ২০ জন সদস্যকে নির্বাচন করবেন সংশ্লিষ্ট এলাকার সিটি করপোরেশন (থাকলে), উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত প্রতিনিধিরা।

সর্বশেষ মহিউদ্দিন অাহমেদ কে জেলা পরিষদ নির্বাচন এ চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিতে নির্দেশ দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।

এর আগে ২০১১সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর বিশেষ ক্ষমতাবলে মহিউদ্দিন অাহমেদ কে মুন্সিগঞ্জ জেলা পরিষদ এর প্রশাসক নিয়োগ করেন।

প্রায় সাড়ে ৪ বছর প্রশাসক থাকাকালীন সময়ে মুন্সিগঞ্জ জেলায় ১৪ কোটি ৭৮ লক্ষ টাকার উন্নয়ন কাজ করেন তিনি।

প্রায় ১০লক্ষ টাকা শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করেন। প্রতি বছর প্রায় ৫লক্ষ টাকা মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী প্রদান করেন। জেলার অসহায় দরিদ্র রোগীদের চিকিৎসার জন্য প্রতি বছর ১০ লক্ষ টাকা চিকিৎসা ভাতা প্রদান করে আসছেন। জেলার বেকার সমস্যা দূরীকরনের জন্য যুবকদের কম্পিউটার প্রশিক্ষণ, মহিলাদের সেলাইমেশিন প্রশিক্ষণ সহ অসংখ্য যুগোপযোগী উদ্যোগ হাতে নেন এবং সাফল্যের সাথে বাস্তবায়ন করেন।

এরই স্বীকৃতিস্বরুপ ২০১৩ এবং ২০১৪ সালে পরপর দুই বার বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ প্রশাসক হিসেবে দেশব্যাপী সুনাম অর্জন করেন।

অাসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনে অনেক প্রার্থীর নাম শোনা গেলেও তার বিকল্প যোগ্য কোন প্রার্থী এই মুহুর্তে নেই।

আমার বিক্রমপুর