পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতিকে পিটিয়ে আহত করেছে সন্ত্রাসীরা

মুন্সীগঞ্জ সিরাজদিখান উপজেলার ইছাপুরা ইউনিয়নের পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সংখ্যালঘু নেতাকে পিটিয়ে আহত করে রাস্তার মধ্যে ফেলে দেয় সন্ত্রাসীরা।

এলাকাবাসী ও দলীয় সূত্র জানায়, গত সোমবার রাত সারে আটটায় ইছাপুরা গ্রামের মৃত মোকশেদের ছেলে সোহাগ পশ্চিম শিয়ালদী গ্রামের মৃত মোঃ মানিক মিয়ার ছেলে রাজন সহ অজ্ঞাত ১০-১২ জন যুবক উসকানিমূলক কথাবার্তা বলায় এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় ইছাপুরা গ্রামের সোহাগসহ ১০/১২ জন ক্ষিপ্ত হয়ে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে হামলা করে। তাকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে আহত করে হাসপাতাল সংলগ্ন রাস্তার মধ্যে ফেলে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উছাপুরা স্বাস্থ্য কমপেক্স হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থা আশংকাজনক দেখে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যাওয়ার পরামশ্ব দেন।

এ ঘটনায় ইছাপুরা ইউনিয়নের পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সংখ্যালঘু নেতা কমল কৃষ্ণপাল বাদী হয়ে সিরাজদিখান থানা লিখিত অভিযোগ করেছেন। ইছাপুরা ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য ভবন দাস জানান, অন্যায় ভাবে সোহাগ ও তার সহযোগীরা কমলকৃষ্ণ পালকে মার ধর করেছে। স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন জানান, কমল কৃষ্ণপালের ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানেও হামলা চালাতে পারে বলে তারা আশংকা করছেন। এ জন্য তারা স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন। স্থানীয় ওই সন্ত্রাসীরা বিভিন্ন সময় তাদের উপর অত্যাচার নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের ভয়ে তারা প্রতিবাদ করতে সাহস পাচ্ছে না।

সময়ের কন্ঠস্বর

Comments are closed.