মুন্সীগঞ্জে এসির অপসারণ দাবিতে মানববন্ধন

মুন্সীগঞ্জে ভ্যাট অফিসের প্রধান কর্মকর্তা এসি মোহাম্মদ আলীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে অপসারণ দাবিতে শহরের মুক্তাপুরে মানববন্ধন করে ফ্যাক্টরীর মালিকগণ। মঙ্গলবার দুপুরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

সূত্রে প্রকাশ, মুন্সীগঞ্জ ভ্যাট অফিসের প্রধান কর্মকর্তা এসি মোহাম্মদ আলীর নেতৃত্বে সদর উপজেলার পঞ্চসার ইউনিয়নে অবস্থিত প্রায় অর্ধ শতাধিক মিল-ফ্যাক্টরীতে ১৫ দিন যাবৎ প্রায় একশত বন্ধ ও খোলা ফ্যাক্টরীতে হামলা চালিয়ে অধিকাংশ ফ্যাক্টরীর গেইট ভেঙ্গে ষ্টীলের আলমারী ভেঙ্গে ফিলম্মী কায়দায় খাতাপত্র লুটপাট করে নিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন ফ্যাক্টরীর মালিকগন।

ফ্যাক্টরির মালিকগণ জানান ভ্যাটের রেইটকৃত প্রতিটি ফ্যাক্টরীর নিজস্ব ভ্যাট নিবন্ধন রয়েছে। এর পরেও অসাধু ভ্যাট কর্মকর্তা থেমে থাকেনী, মোটা অংকের টাকার আশায় প্রতিদিন চালিয়ে যাচ্ছে হামলা, করছে লুটপাট।

রাসেল ফিশিং নেট এর মালিক আমির হোসেন আমার সংবাদকে জানান, মৎস উপকরন প্রস্তুতকারক সমিতির পক্ষে বাংলাদেশ হাই কোর্ট এর বরাবরে দায়েরকৃত রিট মামলাটি মৎস্য মন্ত্রণালযের পক্ষে খারিজ হয়।

সেই সময়ে অধিকাংশ ফ্যাক্টরী বন্ধ রয়েছে আর সেই বন্ধ ফ্যাক্টরীর মালিকদের কেউ আইনের ভয়ভীতি দেখিয়ে খাতাপত্র নিয়ে যায় এবং বর্তমানে চালু অর্ধশতাধিক ফ্যাক্টরীতে এসে একই কায়দায় খাতাপত্র ছিনিয়ে নিয়ে যায়। মালিক পক্ষ খাতাপত্র আনতে গেলে তাদের কাছে মোটা অংকের টাকা দাবী করেন, যদি টাকা না দেয় তাহলে আর কোন দিন খাতাপত্র ফিরে পাবেনা বলে ভ্যাট কর্মকর্তা।

এ দিকে রুপসা ফিশিং এর মালিক ইকবাল হোসেন জানান আমাকে প্রতিদিনই। ঐ অসাধু ভ্যাট কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী আমার কাছে ফোনে ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করছে টাকা না দিলে আমাকে মামলার ভয় দেখাচ্ছে।

প্রায় ২৫ টি ফ্যাক্টরীর মালিক প্রতিনিধিকে জানান আমরা সরকারের নির্ধারিত যে ভ্যাট ধার্য করা আছে প্রয়োজনে সরকারের স্বার্থে আমরা তা দ্বিগুন হারে প্রদান করিব, তবুও ঘোষখোর এই অসাধু কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলীকে একটি পয়সাও দিবনা। প্রয়োজনে আমরা ফ্যাক্টরী বন্ধ করে দিব আমরা। মানববন্ধনে ফ্যাক্টরীর মালিকগণ ঐ দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তার অপসারন দাবি করেন।

বাংলাপ্রেস