স্বর্ণ কারিগরকে হত্যা করে স্বর্ণ লুট!

গাজীপুরের কালীগঞ্জ বাজারে গৌরাঙ্গ চৌধুরীর স্বর্ণের কারখানার কারিগর শ্যামল চন্দ্র বর্মনকে (৩৭) হত্যা করে স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

শুক্রবার ভোরে কালীগঞ্জ পৌর এলাকার বাজার ও বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন গৌরাঙ্গ চৌধুরীর স্বর্ণ অলঙ্কার কারখানায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। নিহত শ্যামল চন্দ্র বর্মন মুন্সীগঞ্জ জেলার টুঙ্গীবাড়ি থানাধীন মাঝিবাড়ি বিশনাল গ্রামের যুধিষ্টি চন্দ্র বর্মনের ছেলে।

থানা সূত্রে জানা যায়, আজ সকাল ১০টার দিকে কারিগর নজরুল দোকানে গিয়ে সাটার আংশিক ও দুইটি দরজা খোলা দেখতে পেয়ে বাজারের পাওনা টাকা তুলতে যায়। ফিরে এসে জুয়েলারির কাজ করতে বসে ড্রয়ারের খোলে। সে সময় শ্যামলকে ঘুমন্ত অবস্থায় দেখতে পান তিনি। ড্রয়ারে রাখা স্বর্ণ না পেয়ে নজরুল ও আরেক কারিগর সোহাগ শ্যামলকে ডাকে। তাদের ডাকে কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে গায়ের কাথা টান দিলে শ্যামলকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পায়। পরে তাদের চিৎকারে আশেপাশের ব্যবসায়ীরা এসে কারখানার মালিক ও থানা পুলিশকে খবর দেয়।

কারখানার মালিক গৌরাঙ্গ চৌধুরী বলেন, কে বা কারা তাকে হত্যা করেছে তা আমি জানি না। তবে দুই/তিন ভরি স্বর্ণ পাওয়া যাচ্ছে না।

থানার ওসি আলম চাঁদ প্রাথমিক তদন্তের শেষে সাংবাদিকদের বলেন, শ্যামল বর্মনকে বাম কানের পেছনে শূন দিয়ে আঘাত করে তাকে হত্যা করা হয়েছে। সম্ভবত ঘটনাটি ভোরে ঘটিয়েছে দুবৃর্ত্তরা। এ বিষয়ে কাউকে আটক করা হয়নি। মামলাটি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

ঘটনাস্থল থেকে নিহত শ্যামলের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

আমাদের সময়