ফলোআপ: স্কুলছাত্রী তাহমিনার জ্ঞান ফিরেছে

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদীখানের চোরমর্দন এলাকায় দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত স্কুলছাত্রী তাহমিনা আক্তারের (১৫) জ্ঞান ফিরেছে। তাহমিনা উপজেলার রশুনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী এবং চোরমর্দন এলাকার মো. তফিজউদ্দিনের মেয়ে। হামলার ঘটনায় বুধবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে আহতের বাবা মামলা দায়ের করেছেন।

তাহমিনার বড়বোন তাসলিমা জানান, আমার বোন সারারাত কোনো কথা বলতে পারেনি। বুধবার সকালে সে অল্প অল্প কথা বলেছে। সে বলেছে স্কুল থেকে বাসায় আসার সঙ্গে সঙ্গে দুইটি লোক তাকে পেছন থেকে হামলা করে। তাদের মুখ গামছা দিয়ে বাঁধা ছিল।

তাহমিনার চাচাতো ভাই মো. সাগর জানান, হামলার সময় বাড়িতে কেউ ছিল না। দুর্বৃত্তদের মুখ বাঁধা ছিল। ঘরে ঢুকে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় কুপিয়েছে। পরে সে চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসে।

সিরাজদীখান থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান জানান, তাহমিনার বাবা বাদী হয়ে সকালে অজ্ঞাতনামা তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। হামলাকারী দুজনের মুখে কাপড় থাকায় কাউকে চিনতে পারা যায়নি।

তাহমিনা মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দুর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হয়। বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণির টেস্ট পরীক্ষা শেষে নিজ বাড়ির পৌঁছানোর পরপর দুর্বৃত্তরা কোপাতে শুরু করে তাহমিনাকে। এসময় স্কুলের পোশাক পরা ছিল সে। হামলার পর দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

বিডিহটনিউজ

Comments are closed.