বড়লিয়ায় মোবাইল চুরির অভিযোগে ২ গৃহকর্মীকে নির্যাতন

সুমিত সরকার সুমন: মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজেলার বড়লিয়া গ্রামে ২ গৃহকর্মীকে মোবাই চুরির অভিযোগে ২ দিন আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার সকালে গৃহকর্মীর স্বজনরা তাদের উদ্ধার করে টঙ্গিবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।আহত গৃহকর্মীরা হলেন, বরুলীয়া গ্রামের রিক্সা চালক মো.আবু কালামোর মেয়ে শেফালি আক্তার (১৪) ও চম্পা আক্তার (১৬)। তাদের গ্রামের বাড়ি রংপুর জেলায়। টঙ্গিবাড়ী বরুলীয়া গ্রামের আবু কালাম শেখ এর বাড়িতে ভাড়া থাকেন।

আহতদের মা আয়েশা বেগম জানান, আমার দুই মেয়ে স্থানীয় শাহেদ বেপারির বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করতো। হটাৎ শুক্রবার রাতে ওই বাড়িতে ২ টি মোবাইল সেট খোয়া যায়। এ ঘটনায় ওই বাড়ির লোকজন আমার মেয়েদের দ্ইু দিন আটকে রেখে মারধর করে। পরবর্তীতে আমরা খবর পেয়ে রবিবার সকালে স্থানীয় লোকজন নিয়ে শেফালি ও চম্পাকে উদ্ধার করি।

টঙ্গিবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসাইন জানান, ঘটনার সংবাদ পেয়ে আমাদের পুলিশের একটি টিম ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছে। কিন্তু ওই বাড়িতে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি। তবে এবিষয়ে স্থানিয় মেম্বার কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনা হয়েছে। অভিযোগ দায়ের করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি আরো জানান, শাহেদ ব্যাপারির বাড়িতে আগামী সপ্তাহে একটি বিয়ের অনুষ্ঠান রয়েছে। আর এই জন্যই দুই বোনকে সাময়িক কাজের জন্য রাখা হয়েছিলো।

টঙ্গিবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. জান্নাত জানান, প্রাথমিক ভাবে শরিরে নীলাফুলা চিহ্ন পাওয়া গেছে। চিকিৎসা চলছে ও বিভিন্ন পরিক্ষা করতে দেয়া হয়েছে। রিপোর্ট দেখলে বুঝা যাবে কি কি সমস্যা হয়েছে।

বিডিলাইভ

Comments are closed.