টঙ্গীবাড়িতে ৩৪ শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান

মুন্সীগঞ্জের ১৮টি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩৪ কৃতি শিক্ষার্থীকে মেধা বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা নিয়ে মেধার ভিত্তিতে সপ্তম ও নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের এই বৃত্তি প্রদান করা হয়। টঙ্গীবাড়ি থানা জনকল্যাণ সংঘ বিগত নয় বছর ধরে বৃত্তিটি প্রদান করছে। শনিবার টঙ্গীবাড়ি উপজেলার সাতুল্লাস্থ সংঘটির নিজস্ব ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে এই বৃত্তির অর্থ তুলে দেয়া হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল।

আয়োজক সংগঠনটির সভাপতি সোহেল মোল্লার সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন প্রবীন প্রধান শিক্ষক খগেন্দ্র চন্দ্র মন্ডল, পাঁচগাঁও ওয়াহেদ আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রতন চন্দ্র বিশ্বাস, কলমা লক্ষীকান্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাজুল ইসলাম, আড়িয়ল স্বর্ণময়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাকসুদুর রহমান, আব্দুল্লাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোশারফ হোসেন, টঙ্গীবাড়ি পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাবিবুর রহমান, বালিগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সোয়ায়েব মিয়া ও সোনারং পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম, প্রবীন শিক্ষক বিমল পাল, বৃত্তি কমিটির আহ্বায় হামিদুল ইসলাম সুমন, সংঘের সাবেক সভাপতি শামীম আহম্মেদ ও টঙ্গীবাড়ি উপজেলা ক্যাবের সভাপতি অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম।

বক্তরা বলেন, শুধু পুথিগত বিদ্যা নয়- দেশজ সংস্কৃতি লালন, দেশ প্রেম সর্বোপরি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় নতুন প্রজন্মকে ভালো মানুষ গড়ে তোলার জন্য এই বৃত্তির ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেভাবেই সেলেবাস ও প্রশ্নপত্র করা হচ্ছে। আয়োজকরা জানান, সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা স্পেন প্রবাসী পিয়ার হোসেন সৌরভের প্রচেষ্টায় ক্রম্ইে এই বৃত্তি প্রসারিত হচ্ছে। ভবিষ্যতে জেলার প্রতিটি উচ্চ বিদ্যালয়ে এই বৃত্তি চালুর পরিকল্পনা রয়েছে। ট্যালেন্টপুল বৃত্তি প্রাপ্ত ১০ জনকে ২ হাজার, সাধারণ গ্রেডে ২০ জনকে দেড় হাজার এবং কোঠাভিত্তিক চারজরকে ১হাজার টাকা কওে প্রদান করা হয়। সাথে দেয়া হয় সদনপত্র।

জনকন্ঠ

Comments are closed.