লৌহজং উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে দালালের উপদ্রব বৃদ্ধি

লৌহজং উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে দলালের উবদ্রব বৃদ্ধি পেয়েছে। সরকারী এ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের ভূলিয়ে ভালিয়ে উন্নত চিকিৎসার নাম করে কাছাকাছি ক্লিনিগুলোতে তাদের নিয়ে ভর্তি করা হচ্ছে। এতে চিকিৎসার নামে সেখাতে অপচিৎসা দেয়া হচ্ছে। যা মাঝে মাঝে রোগীকে মৃত্যুর কুলে ঠেলে দিচ্ছে। এসব দালালরা এতোই প্রভাবশালী যে তাদেরকে বলে কয়েও কোন লাভ হচ্ছেনা। তাই এ বিষয়ে উপজেলা আইন শৃঙ্খরা কমিটির কাছে সাহায্য চেয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান। মঙ্গলবার তিনি লৌহজংয়ে উপজেলা আইনশৃঙ্খলা ও নাশকতা কমিটির মাসির সভায় এ কথা জানান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকতার সভাকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ খালেকুজ্জামানের সভাপতিত্বে আরও আলোচনা করেন উপজেলা প্যানেল চেয়ারম্যান জাকির হোসেন ব্যাপারী, বিক্রমপুর প্রেসক্লাব সভাপতি মো.মাসুদ খান, লৌহজং থানা প্রতিনিধি এসআই হারুনুর রশীদ, মনির হেসেন মাস্টার, কনকসার ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা গুল রওশন ফেরদৌস, উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মাহাবুবুর আলম, আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা শরীফ রেজাউল হক প্রমূখ।

গেলো ঈদে শিমুলিয়া ঘাটে যাত্রীদের নির্বিঘেœ পারাপার করতে পারায় উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও জেলা প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানানো হয়। তাছাড়া পদ্মা সেতু, যসলদিয়া ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লানে কর্মরত বিদেশীদের নিরাপত্তা জোরদার, বাল্য বিবাহ, মাদক নিয়ন্ত্রণসহ উপজেলা আইন শৃঙ্খলার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে বিষদ আলোচনা হয়।

জনকন্ঠ

Comments are closed.