মিরকাদিমে সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্রে মা ছেলে ছুরিকাহত

সুমন ইসলাম: জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রে ছুরিকাহত হয়েছে মো: ফাহিম (১৯) নামে এক যুবক। গুরুত্বর আহত অবস্থায় তাকে মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এসময় তার মা কহিনূর বেগম সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছে। গত ১৭ জুলাই রোববার দুপুরের দিকে মিরকাদিম পৌরসভার দক্ষিণ রামগোপালপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এদিকে এ ঘটনায় মুন্সীগঞ্জ সদর থানার একটি মামলা দায়ের করা হলেও পুলিশ এখনো পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

অন্যদিকে থানায় মামলা করাতে প্রতিপক্ষের লোকজনরা সন্ত্রাসীদের মাধ্যমে ছুঁরিকাহত ফাহিম ও তার পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এলাকাবাসীর সূত্রে জানা গেছে, মিরকাদিম পৌরসভার দক্ষিণ রামগোপালপুর এলাকার মিঠু ঢালী (৩৪)ও তার লোকজনেরা পৃর্ব শত্রুতা ও জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে মো: ফাহিম (১৯) কে কাছে পেয়ে বেদধরক মারধর এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার মুখের চুয়াল কেটে ফেলে। এ সময় তার আর্তচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুঁটে এসে ফাহিমকে রক্তাক্ত গুরুত্বর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেয়া হয়।

এ ঘটনার মামলার বাদী ও ছুঁরিকাহত ফাহিমের মা কহিনূর বেগম জানান,সন্ত্রাসী মিঠু ঢালী ও তার লোকজনেরা ফাহিমকে ধরে ব্যাপক মারধর এবং চাকু দিকে তার মুখের চোয়াল কেটে দেয়।এবং আমাকে মারধর করে। অন্যদিকে তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা করায় সন্ত্রাসী মিঠু ঢালী আমাদের পরিবারকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে।

এদিকে মামলার অভিযোগপত্রে জানা গেছে, মামলার ১নং আসামী মিঠু ঢালী সর্ম্পকে কহিনূর বেগমের মেয়ের ভাসুর।ঘটনার দিন জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে কহিনূর বেগমের মেয়ে শাকিলা ও তার স্বামী আশ্রাফের সঙ্গে মিঠু ঢালীদের ঝগড়া বাঁধে। এখবর পেয়ে কহিনূর বেগম ও তার ছেলে ফাহিম ও ভাই মো: শিপন দক্ষিণ রামগোপালপুর এলাকায় ঘটনাস্থলে গেলে প্রতিপক্ষ মিঠু ঢালী ও তার স্ত্রী সায়মাসহ তাদের লোকজনেরা লাঠিসোটা দিয়ে ব্যাপাক মারধর করে ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তাদেরকে গুরুত্বর রক্তাক্ত জখম করে।

এ সময় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ফাহিমের মুখের চোয়াল কেটে ফেলা হয়।এছাড়াও ঐসময় ফাহিমের কাছে থাকা ১টি আই ফোন ছিনিয়ে নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা।এ বিষয়ে মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার (ওসি) মো:ইউনুচ আলী এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

তিনি জানান,এ ব্যাপারে ফাহিমের মা কহিনূর বেগম থানায় একটি মামলা রুজু করেছে। ঘটনাটির তদন্ত চলছে। আসামীদের যে কোনো সময় গ্রেফতার করা হবে। অপরদিকে মিরকাদিম পৌরসভার মেয়র মো: শহিদুল ইসলাম শাহীন এ ঘটনা সর্ম্পকে জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি।যেহেতু মামলা করা হয়েছে পুলিশ অবশ্যই আসামীদের বিরুদ্ধে আইনুগতভাবে ব্যবস্থা নিবেন বলে আশা করছি।

অন্যদিকে এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো: রাকিবুল হাসান জানান, মামলা হয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। বাদীপক্ষকে মামলা তুলে নেওয়া জন্যে সন্ত্রাসীরা প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে এ বিষয়টিও আমরা দেখছি।তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় দ্রুত আসামীদের গ্রেফতারের প্রক্রিয়া চলছে। এদিকে মিঠু ঢালীর মুঠো ফোনে এ ঘটনার বিষয়ে বত্তব্য নেয়ার জন্যে কয়েক দফা চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

মুন্সিগঞ্জ নিউজ

Comments are closed.