ইরা এখন কিশোরী উন্নয়ন কেন্দ্র হেফাজতে

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার শ্রীনগর কলেজের ছাত্রী নুরুন্নাহার ইরা (১৮) কে আদালত কিশোরী উন্নয়ন কেন্দ্রে প্রেরণ করেছে। শ্রীনগর থানা পুলিশ ইরার মায়ের করা সাধারন ডায়েরী ৩৩৩ নং ১০-০৭-১৬ মূলে নুরুন্নাহার ইরাকে উদ্ধার দেখানো হয়। বুধবার সকাল ১১ টার সময় সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বাকি বিল্লাহ এর আদালতে নুরুন্নাহার ইরা কে হাজির করেন। সেই সাথে রাষ্ট্রপক্ষের কোর্ট পরিদর্শক ইরাকে নিরাপদ হেফাজতে পাঠানোর আবেদন করেন।

আদালতে কলেজে ছাত্রীর পরিবারের কিংবা আইনি কোন অভিভাবক তাকে জামিনে বের করার জন্য আসেনি। আদালত ইরার কোন বৈধ আইনি অভিভাবক না পেয়ে ইরাকে নিরাপদ হেফাজতে পাঠানোর আদেশ দেন।

আদেশে আরো জানা যায়, ইরার কোন বৈধ বা আইনি অভিভাবক না পাওয়ায় তাকে গাজীপুর জেলার কোনাবাড়ীতে অবস্থিত কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রে পাঠানোর আদেশ দেন বিচারক। সূত্রে জানা যায়, কলেজ ছাত্রী নুরুন্নাহার ইরা বাসার কাউকে না জানিয়ে পালিয়ে গিয়ে বিবাহিত এক পুরুষকে বিবাহ করেন। এতে আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ইরার পরিবার বিষয়টি মেনে নিতে পারেনি। ইরাকে আইনি অভিভাবক হিসাবে জামিনে বের করে নেওয়ার জন্য তার বাবা মাকে আদালতে দেখা যায়নি।

অপরদিকে কলেজছাত্রী নুরুন্নাহার ইরা পালিয়ে গিয়ে যাকে বিবাহ করে সেই স্বামীও আসেনি আদালতে। কোর্ট সুত্রে আরো জানা যায়, ইরার শ্বাশুরী আর ননদ সকালে আদালতে আসলেও ইরাকে ছাড়িয়ে নেওয়ার জন্য কোন আইনজীবির সাথে আলাপ করেনি। পরে কৌশলে তারা আদালত হতে পালিয়ে যায়।

এনবিএস

Comments are closed.