শ্রীনগরে স্কুল শিক্ষকের মেয়ের বাল্য বিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন এসিল্যান্ড

আরিফ হোসেন: শ্রীনগরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের বাল্য বিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন সহকারী কমিশনার (ভূমি)। রবিবার সকালে উপজেলার নতুনবাজার এলাকার টেটামারা গ্রামে উপস্থিত হয়ে তিনি উত্তর বালাসুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হুমায়ূণ কবিরের মেয়ে মরিয়ম আক্তার হেনার (১৪) বাল্য বিয়ে বন্ধ করে দেন।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) দিলরুবা শারমিন জানান, মরিয়মের বিয়ের বয়স না হলেও ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সিদ্দিক হাওলাদার ১৮ বছর পূর্ণ হয়েছে মর্মে প্রত্যয়ন পত্র প্রদান করেন। স্থানীয়রা জানায়, মরিয়ম ওই এলাকার বিসমিল্লাহ কিন্ডার গার্টেন ও জুনিয়র হাইস্কুলের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী। তার সাথে আজ একই গ্রামের হাশেম কাড়ালের মালয়েশিয়া প্রবাসী পুত্র মো: সবুজ (৩৫) এর বিয়ের কথা ছিল। বিয়ে উপলক্ষ্যে মেয়ের বাড়িতে সকল আয়োজনও সম্পন্ন হয়। খবর পেয়ে এসিল্যান্ড দিলরুবা শারমিন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বিয়েটি বন্ধ করে দেন।

সরজমিনে উত্তর বালাসুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, হুমায়ূন কবির বিদ্যালয় থেকে তার মেয়ের সকল রেকর্ড পত্র সরিয়ে ফেলেছেন। অফিস রুমের একটি টেবিলে দেখা যায় বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা মিলে বিয়েতে দেওয়ার জন্য একটি উপহার সাজিয়ে রেখেছেন। বয়স সংক্রান্ত প্রত্যয়ন পত্র দেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক সিদ্দিক হাওলাদার কোন সদুত্তর দিতে পারেননি।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো: জামাল উদ্দিন জানান, বয়সের কোন প্রত্যয়নপত্র সিদ্দিক হাওলাদার আইনত দিতে পারেননা। এর জন্য তিনি ব্যক্তিগতভাবে দায়ী হবেন।

Comments are closed.