সিরাজদিখানে জেল হেফাজতে ছাত্রলীগ সভাপতির মৃত্যু

মাদক ব্যবসায়ীদের বাধা দেয়া ও ইউপি নির্বাচনের জেরে হামলায় আহত হওয়ার পর পুলিশের হয়রানি মামলায় গ্রেপ্তারকৃত ছাত্রলীগ নেতা আসিফ হাওলাদার (২৪) মারা গেছেন। কারাগারে থাকার পর রোববার সকালে তিনি মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে মারা যান।

এরআগে গত ১২ এপ্রিল রাত ৯টার দিকে জেলার সিরাজদিখান উপজেলার কোলা গ্রামে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা তাকে মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। নিহত আসিফ হাওলাদার কোলা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি।

সিরাজদিখান উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সৈকত মাহমুদ জানান, কোলা ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আসিফ হাওলাদার এলাকার মাদক ব্যবসায়ী বহিস্কৃত ছাত্রলীগ নেতা ইয়ামিনকে বাধা দিয়ে আসছিলো। এরপর গত ইউপি নির্বাচনে ইউপি ছাত্রলীগের বহিস্কৃত সাধারণ সম্পাদক ইয়ামিন স্বতন্ত্র প্রার্থী নাসির চৌধুরীর নির্বাচন করেন। আসিফ হাওলাদার নৌকার প্রার্থী মীর লিয়াকত আলীর নির্বাচন করেন। এতে ইয়ামিন গং তার উপর ক্ষিপ্ত হয়।

গত ১২ এপ্রিল রাত ৯টার দিকে কোলা গ্রামের রাস্তায় পেয়ে আসিফকে ইয়ামিন গং বেধড়ক পিটিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। তার চিকিৎসার জন্য সিরাজদিখান থানার ওসিকে বলা হলেও তিনি চিকিৎসার ব্যবস্থা না করে পরদিন মামলা দিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়ে দেন।

জেলা কারাগারের জেলার ফরিদুর রহমান রুবেল জানান, গত ১৩ এপ্রিল আসিফকে জেলা কারাগারে আনা হয় একটি মারামারির মামলায়। মাথায় তার আঘাত ছিল। রোববার ভোর ৫টায় মাথায় আঘাতজনিত কারনে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ভোর ৫টা ৪০ মিনিটের সময় মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ৭টায় আসিফ মারা যায়।

এ ব্যাপারে সিরাজদিখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়ারদৌস হাসান বলেন, আসিফকে এলাকার লোকজন গণপিটুনি দেয়। তাকে উদ্ধার করে সিরাজদিখান হাসপাতালে চিকিৎসার পর ডাক্তার রিলিজ দেয়।

বিডিলাইভ

Comments are closed.