সাগামিহারাতে কানাগাওয়া বিজনেস কমিউনিটির সঙ্গে বিসিসিআইজে নেতৃবৃন্দের মতবিনিময় সভা

রাহমান মনি: সম্প্রতি বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি ইন জাপান (বিসিসিআইজে) প্রথম নির্বাচিত কার্যকরী পরিষদের সদস্যদের সঙ্গে জাপানে বিভিন্ন অঞ্চলে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের মতবিনিময় সভা চলছে।

২৭ নভেম্বর ২০১৫ আনুষ্ঠানিক ঘোষণার পর নির্বাচিত প্রতিনিধিদল এই উদ্যোগ গ্রহণ করে। বিভিন্ন প্রিফেকচারভিত্তিক এই মতবিনিময় সভার প্রথম সভাটি ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ খোদ রাজধানীর কিতাসিটি ওজিতে অনুষ্ঠিত হয়। চৌধুরী ট্রেড ইন্টারন্যাশনালের কর্ণধার চৌধুরী শাহীন প্রথম সভাটির উদ্যোক্তা ছিলেন। তারই ধারাবাহিকতা হিসেবে ২য় মতবিনিময় সভাটি কানাগাওয়া প্রিফেকচার বাংলাদেশ বিজনেস কমিউনিটি আয়োজন করে।

১৯ মার্চ ২০১৬ কানাগাওয়ার সাগামিহারা সিটির সাগামিহারা সিমিন কাইকানে অনুষ্ঠিত আঞ্চলিক মতবিনিময় সভাটিতে সভাপতিত্ব করেন মোবারক হোসেন হৃদয়। প্রধান অতিথি ছিলেন বিসিসিআইজে সভাপতি বাদল চাকলাদার। মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন সাধারণ সম্পাদক নাসিরুল হাকিম, উপদেষ্টা এমডি এস ইসলাম নান্নু এবং সদস্য কাজী এনামুল হক। মতবিনিময় সভাটির সঞ্চালনায় ছিলেন স্থানীয় কমিউনিটি পত্রিকা সম্পাদক আবু সিনা সৌরভ।

মতবিনিময় সভায় কানাগাওয়া ছাড়াও টোকিও, সাইতামা, গুনমা, ইবারাকি, তোচিগি এবং চিবা’র বিভিন্ন ব্যবসায়ী অংশগ্রহণ করেন। প্রবাসী মিডিয়া কর্মীগণও মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত ছিলেন বিসিসিআইজে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এবং উৎসুক প্রবাসীগণ।

কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে কাছে পেয়ে তাদের এই মহতী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে ব্যবসায়ীগণ বিভিন্ন প্রশ্ন করে তাদের কৌতূহল নিবারণ করেন। এসব প্রশ্নের মধ্যে ব্যবসা শুরু করার প্রারম্ভে বিভিন্ন বিড়ম্বনার কথা জানান এবং এসব বিড়ম্বনা থেকে উত্তরণের পথ বাতলে দেয়ার অনুরোধ ছিল অন্যতম। উদ্যমী ব্যবসায়ীরা শুরুতে পুঁজি সংকট এবং এ সংকটে কেন্দ্রের সহায়তা চান।

কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ব্যবসায়ীদের সমস্যা সংক্রান্ত প্রশ্নগুলো ধৈর্যসহকারে শোনেন এবং সমাধানে যথাসম্ভব পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস প্রদান করেন। এ সময় একটি অফিস (নিজস্ব) নেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়।

এক প্রশ্নের জবাবে কার্যকরী পরিষদ সদস্য কাজী এনামুল হক জানান, ১৪ আগস্ট ২০১৫ এক সাধারণ সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত মোতাবেক নির্বাচনে আগ্রহীদের ২ লাখ ইয়েন ১৫ অক্টোবর ২০১৬ এর মধ্যে জমা প্রদানকৃত রশিদ প্রদান সাপেক্ষে ১৭ অক্টোবর মনোনয়নপত্র দাখিল, ২৫ অক্টোবরের মধ্যে মনোনয়ন প্রত্যাহার এবং ২৭ নভেম্বর ছিল নির্বাচনের নির্দিষ্ট তারিখ। ১১ সদস্যবিশিষ্ট কার্যকরী পরিষদে নির্বাচিত হবার লক্ষ্যে ১১ জন সদস্য ছাড়া আর কোনো প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল না করায় নির্বাচন কমিশন ২৭ নভেম্বর সকলকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করে বিসিসিআইজের নিজস্ব ওয়েবসাইট (www.bccij.com) এর মাধ্যমে জানান দেন এবং এর কপি বাংলাদেশ দূতাবাসে প্রেরণ করে অবহিত করা হয়।

এ সময় বিসিসিআইজের প্রথম নির্বাচন পরিচালনায় কমিশনের অন্যতম সদস্য এবং পরে ভারপ্রাপ্ত কমিশনার জহিরুল ইসলাম উপস্থিত থেকে নির্বাচন কমিশনের অবস্থান ব্যাখ্যা করেন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সংগঠনের গঠনতন্ত্র এবং বিধি মেনেই আমরা এই কমিটিকে অনুমোদন দিয়ে থাকি। এ ছাড়া বিধি মোতাবেক আর কোনো পথ খোলা ছিল না।

কানাগাওয়াবাসী বিজনেস কমিউনিটির পক্ষে প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী শাপলা ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানির কর্ণধার মোবারক হোসেন হৃদয় মতবিনিময় সভা আয়োজনে মুখ্য ভূমিকা পালন করেন।

rahmanmoni@gmail.com

সাপ্তাহিক

Comments are closed.