বিকাশ এজেন্টের টাকা আত্মসাৎ

এম.এম.রহমান: মুন্সীগঞ্জে বিকাশের এক এজেন্টের ৭২ হাজার টাকা তার বিকাশ একাউন্টের গোপন নাম্বার চুরি করে আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত বুধবার রাতে মুন্সিগঞ্জ শাখার এক বিতরণ কর্মকর্তার মুঠোফোনের নাম্বার থেকে এই টাকা আত্মসাৎ করা হয় এমন অভিযোগে থানায় ভুক্তভোগি ওই এজেন্ট সাধারণ ডায়েরী করেছেন। ক্ষতিগ্রস্ত ওই এজেন্ট হলেন, পঞ্চসার ইউনিয়নের ফিরিঙ্গিবাজারে রাসেল টেলিকম এর মালিক রাসেল মিয়া। রাসেল মিয়া জানায়, সে বিকাশের এজেন্ট হয়েছেন। এজেন্ট হওয়ায় মুন্সীগঞ্জ শহরের শাখা অফিস থেকে বিক্রয় কর্মকর্তা নয়ন প্রতিদিন তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে মুঠোফোনে তার বিকাশ একাউন্টে টাকা দিয়ে আসতেন। তার বিপরীতে নয়ন নগদ টাকা নিয়ে আসতেন। সেই সম্পর্কের সুত্রধরে গত বৃহস্পতিবার রাতে সাড়ে ১০ টায় নয়নের মুঠোফোন থেকে ফোন করে বিকাশ অফিস থেকে ফোন করেছেন পরিচয় দেয়। এরপর তাকে তার মুঠোফোনে কয়েকটি নাম্বার চাপ দিয়ে বলেন। তার কথামত তার মুঠোফোনে নাম্বার চাপার পরে ৩ টি ফোন নাম্বার থেকে ৭২ হাজার টাকা প্রদানের প্রাপ্তি শিকার এসএমএস আসে। এরপর থেকে তার একাউন্টের গোপন নাম্বার কাজ করছেনা। রাতেই সঙ্গে সঙ্গে নয়নের মুঠোফোন নাম্বারে কল ব্যাক করলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এদিকে পরের দিন গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে রাসেল বিকাশের মুন্সিগঞ্জ শাখায় যোগাযোগ করলে নয়ন বলে সে তার নাম্বারে ফোন করেনি বলে অস্বীকার করেন। বিষয়টি জানতে যোগাযোগ করলে নয়ন বলেন, তার মুঠোফোন নাম্বার হ্যাগ করে অন্যকেউ ফোন করে টাকা চুরি করেছে। এর সঙ্গে আমি জড়িত না। বিকাশের ব্যবস্থাপক নুরুল ইসলাম বলেন, এটা হ্যাকারদের কাজ। তারাই ফোন করে টাকাটি আত্মসাৎ করেছে।

সদর থানার ওসি ইউনুচ ভূইয়া বিকাশের টাকা চুরির ঘটনায় থানায় সাধারণ ডায়েরী করার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে।

চমক নিউজ

Comments are closed.