সিরাজদিখানে ৪৫০ জনের বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা

ইউপি নির্বাচনে সংঘর্ষ
মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় গত মঙ্গলবার ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে সংঘর্ষের সময় পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় তিনটি মামলা হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাতেই পুলিশ বাদী হয়ে সিরাজদিখান থানায় এসব মামলা করে। তিন মামলায় অন্তত ৪৫০ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার নির্বাচনের দিন উপজেলার বালুচরে দক্ষিণপাড়া খাসমহল বালুচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণের সময় পুলিশ হামলার শিকার হয়। এ ঘটনায় সিরাজদিখান থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ইলিয়াস মিয়া বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা দেড় শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করে মামলা করেন। পাশের লতব্দি ইউপির রামানন্দ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় এসআই রুহুল কাজী বাদী হয়ে আরেকটি মামলা করেন। এই মামলায়ও অজ্ঞাত দেড় শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করা হয়। অন্য মামলাটি করা হয় রশুনিয়া ইউপির ধামালিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায়। এ মামলায়ও অজ্ঞাতনামা এক থেকে দেড় শ ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সিরাজদিখানে প্রথম ধাপে ১০টি ইউপির নির্বাচনে বিভিন্ন কেন্দ্র দখল ও জাল ভোট দেওয়া নিয়ে প্রার্থী ও তাঁদের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে পুলিশ, র্যা ব সদস্য ও বিএনপির প্রার্থীসহ প্রায় ৬৫ জন আহত হন।

জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার মো. সামসুজ্জামান বলেন, হামলার ঘটনায় শত শত মানুষ অংশ নেয়। তাই এসব মামলায় অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করা হয়েছে। হামলাকারীদের শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে। এ ছাড়া নির্বাচনের দিন কিছু ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাজা দেওয়া হয়।

প্রথম আলো

Comments are closed.